গর্ভাবস্থায় সায়াটিকার ব্যথা (Sciatica Pain)

গর্ভাবস্থায় সায়াটিকার ব্যথা

গর্ভাবস্থায় অনাগত সন্তানের জন্য মায়ের দুশ্চিন্তার যেমন শেষ নেই, তেমনি শারীরিক বিভিন্ন জটিলতাও এতে যোগ করে নতুন মাত্রা।  এরকমই একটি রোগ সায়াটিকা।  গর্ভাবস্থায় প্রায় ৫০%  মহিলা এই সমস্যায় পড়েন৷  গর্ভাবস্থায় সায়াটিকা এবং এ সমস্যায় করণীয়   নিয়েই আজকের আলোচনা।   সায়াটিকা কি? সায়াটিকা এক ধরণের ব্যাকপেইন যেখানে রোগী পিঠে বা পশ্চাৎদেশে তীক্ষ্ণ ব্যাথা অনুভব করেন এবং এই ব্যাথা কোমর থেকে পা পর্যন্ত ছড়িয়ে যেতে পারে। এই ব্যাথাটি সায়াটিক স্নায়ুর সাথে সম্পর্কিত।  সায়াটিক নার্ভ শরীরের সবচেয়ে বড় স্নায়ু যা মেরুদন্ডের নিচের দিক থেকে শুরু হয়ে একেবারে পা পর্যন্ত পৌছে গেছে। শরীরের কোন…

বিস্তারিত পড়ুন

শিশুকে প্রশংসা করার সময় যে শব্দগুলোর ব্যবহারে সতর্ক থাকতে হবে

শিশুকে প্রশংসা করার সঠিক উপায়

শারীরিক ও মানসিক ভাবে একটি শিশু স্বাচ্ছন্দ্যের সাথে বেড়ে ওঠার জন্য বাবা মা’কে হাজারো বিষয়ে মনোযোগী হতে হয়। কেবল মৌলিক চাহিদাগুলো পূরণ করাই নয় বরং শিশুকে বিভিন্ন বিষয়ে উৎসাহিত করার জন্য প্রশংসা করাও বেশ প্রয়োজন। তবে যে কোন প্রশংসা করার আগে প্রশংসার শব্দগুলো সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। কেননা কখনো কোন প্রশংসা শিশুকে তো উৎসাহী করে তোলেই না বরং সে কাজটির প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলতে পারে।   “ প্রশংসা এক ধরণের মানসিক ওষুধ। যে কোন ওষুধের মতই “প্রশংসা” ইচ্ছেমত ব্যবহার করা যাবেনা। প্রত্যেকটি ওষুধের ব্যপারেই কিছু নিয়ম কানুন (যেমন- কতবার ও…

বিস্তারিত পড়ুন

গর্ভাবস্থায় টিটেনাস টক্সয়েড বা টিটি টিকা

গর্ভাবস্থায় টিটেনাস টক্সয়েড বা টিটি টিকা

সন্তান জন্মদানের আগ থেকেই বাবা মায়ের নানা ধরণের পরিকল্পনার শেষ থাকে না। কাপড়, দোলনা,  খেলনা নানাবিধ জিনিস সাজাতে শুরু করেন তারা।  কিন্তু অনাগত সন্তানের রোগ প্রতিরোধের জন্য তারা সেভাবে চিন্তা করেন কি? গর্ভাবস্থায় টিটি টিকা এমনই একটি সুরক্ষা অস্ত্র যা আপনার অনাগত শিশুকে রক্ষা করবে ধনুষ্টংকারের হাত থেকে।  টিটি টিকা কি ? টিটেনাস টক্সয়েড নামক একটি ভ্যাক্সিনকে সংক্ষেপে টিটি টিকা বলা হয়।  এই টিকা মানুষকে টিটেনাস বা ধনুষ্টংকার রোগের সংক্রমন থেকে রক্ষা করে। নবজাতকের ধনুষ্টংকার রোগ হওয়াটা মারাত্মক ফলাফল বয়ে আনতে পারে।  সারা পৃথিবীজুড়ে এই সমস্যা দূর করার স্বার্থে গর্ভবতী…

বিস্তারিত পড়ুন

বয়স অনুযায়ী শিশুকে ঘরের যেসব কাজে অভ্যস্ত করতে পারেন

বয়স অনুযায়ী শিশুকে ঘরের যেসব কাজে অভ্যস্ত করতে পারেন

পূর্ববর্তী আর্টিকেল থেকে আমরা মোটামুটি বুঝতে পেরেছি যে ঘরের সামান্য কিছু কাজ করার মাধ্যমে শিশু অনেক কিছু শিখতে পারবে এবং সুন্দরভাবে বেড়ে ওঠার জন্য এই টুকটাক কাজ খুবই উপকারী ভূমিকা রাখে। এখন প্রশ্ন আসে শিশুকে কোন বয়স থেকে কাজ করতে দেয়া উচিৎ বা কাজের ধরণ কেমন হওয়া উচিত? [ আরও পড়ুনঃ ঘরের কাজে শিশুকে কেন অভ্যস্ত করবেন | কিভাবে করবেন ] কোন বয়স থেকে শিশুকে ঘরের কাজ করতে দেয়া উচিৎ? সাধারণত বেশীরভাগ বাব মা শিশুর বয়স ৮ থেকে ১০ বছর হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করেন, কেননা তারা মনে করেন যে শিশু…

বিস্তারিত পড়ুন

ঘরের কাজে শিশুকে কেন অভ্যস্ত করবেন | কিভাবে করবেন

ঘরের কাজে শিশুকে কেন অভ্যস্ত করবেন

আপনি হয়ত ভাবছেন আপনার ছোট্ট শিশুটির এখনো ঘরের কাজ করার বয়স হয়নি, এই বয়সটা শুধুমাত্র খেলার বয়স! তবে আপনি কি জানেন, এই খেলার ছলেই ঘরের টুকিটাকি কাজ করার অভ্যাস তৈরি করতে পারলে শিশু অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠবে? বড়দের করা কাজ আর শিশুদের করা কাজের মধ্যে পার্থক্য হলো একটি শিশু কখনই একদম পারফেক্ট ভাবে কোন কাজ করতে পারবে না। আর আপনার করনীয় হল, এক্ষেত্রে শিশুকে চাপ না দেয়া। শিশুকে কাজ করতে দেয়ার মানে কিন্তু এই নয় যে, আপনার ঘরের কাজে সাহায্য করা! এর মূল লক্ষ্য হলো তাকে আত্মবিশ্বাসী এবং স্বাবলম্বী…

বিস্তারিত পড়ুন

ভুল আচরণের জন্য শিশুর কাছে ক্ষমা চাওয়া গুরুত্বপূর্ণ কেন

ভুল আচরণের জন্য শিশুর কাছে ক্ষমা চাওয়া

ভুল করে তা স্বীকার করার বা তার জন্য ক্ষমা চাওয়ার মানসিকতা আমাদের অনেকেরই থাকেনা। নিজের সন্তানের কাছে ক্ষমা চাওয়াটা অনেক বাবা-মা ই স্বাভাবিক ভাবে নিতে পারেনা। কিন্তু আপনি কি জানেন যে ভুল স্বীকার করার চর্চা এবং তার জন্য ক্ষমা প্রার্থনা আপনার ও আপনার সন্তানের মধ্যকার সম্পর্কের জন্য কতোটা জরুরী? কি হতে পারে যদি ভুল আচরণের জন্য সন্তানের কাছে ক্ষমা না চান ভুল করাটা আমাদের জীবনেরই এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। আমরা সবাই কমবেশি অযাচিত কাজ করে ফেলি। অধিকাংশ পিতা-মাতা মনে করে যে সন্তানের কাছে নিজের দোষ স্বীকার করলে মনে হয় তারা ছোট…

বিস্তারিত পড়ুন

আলট্রাসনোগ্রাফি রিপোর্ট সম্পর্কে বিস্তারিত

আল্ট্রাসনোগ্রাফি রিপোর্ট সম্পর্কে বিস্তারিত

আজকে আলোচনা করবো গর্ভকালীন সময়ে করা একটি কমন জিজ্ঞাসা নিয়ে, আর সেটি হলো আলট্রাসনোগ্রাফি রিপোর্ট (Pregnancy Ultrasound Report) কিভাবে বুঝবো? কারণ আমরা আকুল হয়ে প্রতীক্ষা করি গর্ভে বেড়ে ওঠা ছোট্ট প্রাণটি কেমন আছে তা জানার জন্য।  আর প্রযুক্তির এই যুগে মা বাবার এই দুশ্চিন্তা আর কৌতুহলের উত্তর দিতে রয়েছে আলট্রাসনোগ্রাফি – শব্দতরঙ্গ ব্যবহার করে একটি যন্ত্রের সাহায্যে জানিয়ে দেয়া হয় গর্ভের ভ্রূণের অবস্থান ও বিকাশ নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ বেশ কিছু তথ্য। কোন রেডিয়েশান ব্যবহৃত হয় না বলে, আলট্রাসাউন্ড -টেকনোলজি সম্পুর্ন নিরাপদ। ডাক্তারের পাশাপাশি মায়েরাও আলট্রাসনোগ্রাফি রিপোর্টটা দেখে বোঝার চেষ্টা করেন তার…

বিস্তারিত পড়ুন

শিশুকে খাওয়ানোর বিষয়ে যে ১১ টি ভুল বাবা মায়েরা করে থাকেন

শিশুকে খাওয়ানোর বিষয়ে যে ১১ টি ভুল বাবা মায়েরা করে থাকেন

সন্তান ঠিকমত খাওয়া দাওয়া না করতে চাইলে সব বাবা-মায়েরাই বেশ দুশ্চিন্তায় ভোগেন। তবে আমরা নিজেরাই শিশুর খাওয়ার প্রতি অনীহার কারণ হয়ে উঠছি কি না সেটা নিয়েও কিছুটা ভাবা প্রয়োজন। কেননা একটু সঠিক পদ্ধতিতে খাওয়ালেই হয়ত শিশু ঠিকমত খাওয়া দাওয়া করবে। শিশুর খেতে না চাওয়াকে একটি বদ অভ্যাসের কাতারে ফেলে দিয়ে, নিজেদের দোষগুলোর দিকে হয়ত অনেক বাবা মায়েরাই তেমন লক্ষ্য রাখেন না। আমরা আজ কথা বলব এমনই কিছু ভুল নিয়ে, যে ভুলগুলো শিশুকে খাওয়ানোর সময় আমরা হরহামেশাই করে থাকি। ১। স্বাধীনভাবে খেতে না দেয়া / খাবার খেতে জোর করা এমনটা প্রায়…

বিস্তারিত পড়ুন

গর্ভাবস্থায় রেস্টলেস লেগ সিনড্রোম | পায়ে অস্থিরতা

গর্ভাবস্থায় রেস্টলেস লেগ সিনড্রোম

কখনো কি ভেবেছেন আপনার পা দুটো আপনার কথা না শুনলে কেমন লাগবে?  যদি  রাতে হঠাৎ ঘুম ভেংগে পা দুটো নাড়ানোর অদম্য ইচ্ছা হয়? শুনতে অবাক লাগলেও এমনটা হওয়া কাল্পনিক কিছু নয়।  এটি একটি রোগ যা রেস্টলেস লেগ সিনড্রোম (Restless leg syndrome) বা আরএলএস নামে পরিচিত। পুরুষের চাইতে মহিলারাই বেশি আক্রান্ত হন এই রোগে।  গর্ভাবস্থায় প্রায় এক তৃতীয়াংশ মহিলার ক্ষেত্রে রেস্টলেস লেগ সিনড্রোমের উপসর্গ  দেখা দেয় । রেস্টলেস লেগ সিনড্রোম কি? এটি স্নায়ুতন্ত্রের সাথে জড়িত এমন একটি রোগ যাতে রোগীর অনবরত পায়ে অস্বস্তি ও যন্ত্রণা হয়। পায়ে শিরশিরে ভাব ও প্রদাহ…

বিস্তারিত পড়ুন

শাস্তি না দিয়েই কিভাবে শিশুকে শৃঙ্খলা শেখানো যায়

শাস্তি না দিয়েই কিভাবে শিশুকে শৃঙ্খলা শেখানো যায়

সন্তান প্রতিপালন নিঃসন্দেহে অত্যন্ত কঠিন ও মানবজীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কাজ। সব বাবা-মা কেই খুব বিচক্ষণতা, ধৈর্য ও পরিশ্রমের মাধ্যমে সন্তান মানুষ করতে হয়। সন্তান প্রতিপালনের অনেকগুলো ধাপের একটি হচ্ছে শৃঙ্খলা শেখানো। বাচ্চাকে শৃঙ্খলা অবশ্যই শেখাতে হবে, তবে তা যেন হয় গঠনমূলক ও ইতিবাচক উপায়ে। শাস্তি ও  শৃঙ্খলার মধ্যে যে সীমারেখা রয়েছে তা জানতে হবে এবং শিশুকে শাস্তি না দিয়েই কিভাবে শৃঙ্খলিত জীবনে অভ্যস্ত করা যায় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।  আরও পড়ুনঃ শিশুকে শৃঙ্খলা শেখাতে শাস্তি দেয়া কতটা কার্যকরী শাস্তি ছাড়াই কিভাবে শিশুকে শৃঙ্খলা শেখানো যায়? শাস্তি না দিয়েও শিশুকে শৃঙ্খলা…

বিস্তারিত পড়ুন