বাচ্চার হার্টবিট না আসার কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত

বাচ্চার হার্টবিট না আসার কারণ

গর্ভাবস্থায় সবকিছু স্বাভাবিক ভাবে আছে কি না অর্থাৎ আপনার গর্ভাবস্থা স্বাভাবিকভাবে আগাচ্ছে কিনা সেটা বোঝার সবচাইতে ভালো নির্দেশক হোল শুরুর দিকের আলট্রাসাউন্ডে বাচ্চার হার্টবিট আসা বা শুনতে পাওয়া। সাধারণত গর্ভকালীন সময়টা এই ধাপে পৌঁছালেই আমরা ধারনা করে নিতে পারি যে গর্ভপাত হওয়ার সম্ভাবনা বেশ কমে এসেছে। তবে এই সময়ে আলট্রাসাউন্ড পরীক্ষা করার পর যদি শিশুর হৃৎস্পন্দন শুনতে না পান, তখন? আপনি হয়ত ভাবতে পারেন যে আলট্রাসাউন্ডে বাচ্চার হার্টবিট না আসার মানেই হল গর্ভপাত হয়ে যাবে। তবে এমতাবস্থায় কি ধরনের ঘটনার সম্মুখীন হতে যাচ্ছেন অর্থাৎ আপনি কি আশার দোলায় দোদুল্যমান অবস্থায়…

বিস্তারিত পড়ুন

গর্ভপাত সংক্রান্ত প্রচলিত কিছু ভ্রান্ত ধারণা

গর্ভপাত বা মিসক্যারেজ সংক্রান্ত প্রচলিত কিছু ভ্রান্ত ধারণা

গর্ভপাত বা মিসক্যারেজ সংক্রান্ত প্রচলিত কিছু ভ্রান্ত ধারণা মিসক্যারেজ বা গর্ভপাত এক অত্যন্ত সাধারণ সমস্যা। প্রায় ২০ শতাংশ মেয়েদের এই দুর্ভাগ্যজনক অভিজ্ঞতার মধ্য দিতে যেতে হয়। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই কোন কারণ খুঁজে পাওয়া যায়না। একে প্রতিরোধের উপায়ও খুব কম। তা সত্ত্বেও প্রচলিত রয়েছে নানা ধরনের কুসংস্কার, ভ্রান্ত ধারনা, সামাজিক বিধিনিষেধ। শিক্ষিত মানুষজনও এর ব্যাতিক্রম নন। এরকমই কিছু মিথ বা ভ্রান্ত ধারনা নিয়ে আমাদের আজকের আলোচনা।  অবশ্য সব ধরনের গর্ভপাত নিয়ে আমরা এখানে আলোচনা করবনা। গর্ভাবস্থার প্রথম তিনমাসে ঘটা গর্ভপাত যার পেছনে কোন জ্ঞাত ডাক্তারি কারণ নেই, সেগুলি নিয়ে যেসব ভুল ধারনা…

বিস্তারিত পড়ুন

গর্ভপাতের কারণ ও প্রতিকার

গর্ভপাতের কারণ ও প্রতিকার

গর্ভপাত কি? ডিম্বানু নিষিক্ত হওয়ার পর পরবর্তী পাঁচ মাসের (২০ সপ্তাহ) মধ্যে যে কোন সময়ে প্রসবের রাস্তা দিয়ে বের হয়ে যাওয়াকেই মিসক্যারেজ বা গর্ভপাত বলে। ডাক্তারি পরিভাষায় একে স্পন্টেনিয়াস অ্যাবোরশনও বলা হয়। গর্ভধারণ করেছেন জানতে পারা মায়দের মদ্ধে ১০-১৫ ভাগ মায়েদের গর্ভপাত হতে পারে। আর বেশীরভাগ গর্ভপাত হয় প্রথম ট্রাইমেস্টারে অর্থাৎ গর্ভধারণের ১২ সপ্তাহের মধ্যে। তাই স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞরা ১২ সপ্তাহ অবধি সময়টিকে খুব সাবধানে থাকতে বলেন। দ্বিতীয় ট্রাইমেস্টারে শতকরা ১-৫ ভাগ মায়েদের গর্ভপাতের সম্ভাবনা থাকে। বৈজ্ঞানিক গবেষণায় এটা দেখা যায় যে প্রথম তিন মাসে যে বাচ্চাগুলো নষ্ট হয় বা গর্ভপাত…

বিস্তারিত পড়ুন