গর্ভাবস্থায় আয়রনের ঘাটতি জনিত রক্তশূন্যতা বা এনিমিয়া কিভাবে নিয়ন্ত্রণে রাখবেন

গর্ভাবস্থায় আয়রনের ঘাটতিজনিত রক্তশূন্যতা বা এনিমিয়া কিভাবে নিয়ন্ত্রণে রাখবেন

কীভাবে বুঝবেন আপনার আয়রনের ঘাটতি জনিত রক্তশূন্যতা বা এনিমিয়া হয়েছে? আয়রনের ঘাটতির কারণে যদি গর্ভাবস্থায় রক্তশুন্যতা হয়ে থাকে তাহলে আপনার মধ্যে হয়ত কোন ধরনের লক্ষণই দেখা যাবে না, বিশেষ করে আপনার সমস্যাটি যদি প্রাথমিক অবস্থায় থাকে অর্থাৎ সমস্যাটি যদি অল্প হয়। অন্যথায় আপনার ক্লান্ত, দুর্বল অথবা মাথা ঝিম ঝিম করার মত অনুভব হতে পারে। তবে এই ধরনের লক্ষণ গর্ভকালীন সময়ে এমনিতেই আপনার মধ্যে দেখা যেতে পারে, যার ফলে রক্ত পরীক্ষা করার আগ পর্যন্ত আপনি হয়ত বুঝতেই পারবেন না যে আপনার আয়রনের ঘাটতির কারণে রক্তশুন্যতা হয়েছে। এছাড়া যেহেতু গর্ভকালীন সময়ে অনেকেই আয়রনের…

Read More

গর্ভাবস্থায় দুইজনের জন্য খেতে হবে বলতে আসলে কি বোঝায়?

গর্ভাবস্থায় দুইজনের জন্য খেতে হবে বলতে আসলে কি বোঝায়?

গর্ভবতী মায়েদের গর্ভধারণের শুরু থেকে বেশি বেশি খেতে বলা হয়। কারণ, এখন আপনাকে যে দুজনের জন্য খেতে হবে ! কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, এটি কি আদৌ সত্যি, নাকি কোনো উপকথা? গর্ভাবস্থায় আপনাকে কি দুইজনের সমপরিমাণ খাবার খেতে হবে? সরাসরি এই প্রশ্নের উত্তর, না দিয়েই দিতে হবে। তবে মাঝেমধ্যে আপনার দুইজনের সমপরিমাণ খাবার খেতে ইচ্ছে হতে পারে, তবে এটা মনে রাখবেন ডাক্তার আপনাকে “দুইজনের জন্য খাবার খাবেন” বলতে দুইজন পূর্ণ বয়স্ক মানুষের সমপরিমাণ খাবার খাওয়ার কথা বলেন নি। অনেকের মতে, একজন গর্ভবতী মাকে দুজনের খাবার খাওয়া উচিত। এটা ঠিক নয়। কারণ অতিরিক্ত…

Read More

গর্ভাবস্থায় লিস্টেরিওসিস : সতর্ক থাকা জরুরী

গর্ভাবস্থায় লিস্টেরিওসিস

লিস্টেরিওসিস (Listeriosis) কি? লিস্টেরিওসিস রোগটির নাম শুনেছেন?? হয়তো,বেশীরভাগেরই উত্তর আসবে, না! পৃথিবীতে প্রতিনিয়ত হাজার রকম রোগে আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ। এর মধ্যে কয়টা সম্পর্কেই বা আমরা জানি? আর জানাটা আসলে সম্ভবও নয়। তবে এতোটুকু নিশ্চয়তা দিতে পারি যে, লিস্টেরিওসিস রোগটি সম্পর্কে জানা আপনার বর্তমান এবং ভবিষ্যতের জন্য খুবই জরুরী! এটা হল এমন এক ধরনের ভয়াবহ ইনফেকশন যেটা লিস্টেরিয়া মনোসাইটোজিনেস  (listeria monocytogenes) নামক ব্যাকটেরিয়া সংক্রমিত খাবার খেলে আপনার হতে পারে। মাটি,পানি সবখানেই থাকতে পারে এ ব্যাক্টেরিয়া। মূলত কাঁচা শাক-সবজি,কাঁচা মাংস, দুধ এমনকি রেফ্রিজারেটরের কম তাপমাত্রায়ও এরা জন্মাতে পারে। মাত্র একহাজারটিরও কম সংখ্যক…

Read More

গর্ভকালীন ডায়াবেটিস কিভাবে নিয়ন্ত্রণে রাখবেন

গর্ভকালীন ডায়াবেটিস কিভাবে নিয়ন্ত্রণে রাখবেন

গর্ভকালীন ডায়াবেটিস থাকলে কি একটু বেশিই ডাক্তারের কাছে যাওয়া প্রয়োজন? আপনি যখন জানতে পারবেন যে আপনার গর্ভকালীন ডায়াবেটিস (gestational diabetes) হয়েছে তখন থেকে প্রতি দুই সপ্তাহে একবার করে আপনাকে ডাক্তারের কাছে যেতে হবে। তবে এই সমস্যার জন্য যদি আপনাকে ইনসুলিন অথবা অন্য কোন ধরনের ওষুধ গ্রহণ করতে হয় তাহলে আপনাকে হয়ত প্রতি সপ্তাহে অন্তত একবার করে ডাক্তারের কাছে যাওয়া লাগতে পারে। তৃতীয় ট্রাইমেস্টারে আপনার গর্ভের শিশুর কি স্বাভাবিক ভাবে বৃদ্ধি হচ্ছে কি না এটা জানার জন্য আপনাকে হয়ত একবার অথবা দুইবার আলট্রাসাউন্ড দিয়ে পরীক্ষা করা হতে পারে। এছাড়া আপনাকে যদি…

Read More

গর্ভাবস্থায় পর্যাপ্ত পানি পান করছেন তো?

গর্ভাবস্থায় পর্যাপ্ত পানি

গর্ভাবস্থায় পর্যাপ্ত পানি পান করাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, তবে তারচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হল পানির উৎস নিরাপদ কি না সে সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া। কেননা পানির মধ্যে শুধু H20 থাকে ব্যাপারটা এমন না, আপনার পান করা পানির মধ্যে আরো অনেক কিছুই থাকতে পারে। গর্ভকালীন সময়ে আপনার কি অনেক পানি পান করতে ইচ্ছে করে? হ্যাঁ! এমনটাই হওয়া উচিৎ। অচিরেই আপনি মা হতে যাচ্ছেন, আর এই মুহূর্তে পর্যাপ্ত পানি পান করাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। এই আর্টিকেলটি পড়লে আপনি গর্ভকালীন সময়ে পানি পান করার গুরুত্ব, উপকারিতা (অর্শরোগ সহ আরো অন্যান্য গর্ভকালীন জটিলতা থেকে কীভাবে নিরাপদ…

Read More

গর্ভকালীন সময়ে নিরাপদে ব্যায়াম করার ১৩টি নিয়ম

গর্ভকালীন সময়ে নিরাপদে ব্যায়াম করার ১৩টি নিয়ম

গর্ভকালীন সময়ে হালকা কিছু ব্যায়াম করলে শারীরিক ও মানসিক ভাবে বেশ প্রফুল্ল থাকা যায় এবং এই প্রফুল্লতা নিজেকে সন্তান জন্ম দেয়ার মত একটা ব্যাপারে মানসিক ভাবে প্রস্তুতি নিতে সাহায্য করে। তবে যেহেতু গর্ভকালীন সময়টা একজন নারীর জন্য বেশ সংবেদনশীল একটা সময়, তাই ব্যায়ামের ক্ষেত্রেও একটু বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়।

Read More

গর্ভাবস্থায় যে সব বিপদ চিহ্ন দেখলে দ্রুত ব্যাবস্থা নিতে হবে

গর্ভাবস্থায় যে সব বিপদ চিহ্ন দেখলে দ্রুত ব্যাবস্থা নিতে হবে

গর্ভে সন্তান আসার পর থেকে তার ভূমিষ্ঠ হওয়া পর্যন্ত সময়টি খুবই গুরত্বপূর্ণ। সামান্য একটু অসচেতনতা ঘটাতে পারে মা ও তার অনাগত সন্তানের ক্ষতি। তাই আসুন জেনে নিই গর্ভাবস্থার কিছু বিপদচিহ্ন। বিভিন্ন বিপদ সংকেত যেসকল উপসর্গ অবহেলা করা যাবে না গর্ভাবস্থা সম্পর্কে আপনি যতই পড়ে থাকুন কিংবা অন্য মায়েদের সাথে আলাপ করে থাকুন না কেন, আপনার নিজের ৯ মাসে যা যা ঘটছে তার সবকিছুই স্বাভাবিক কি না সেটা বলা কঠিন। এখানে কিছু উপসর্গ নিয়ে কথা বলা হচ্ছে যার কোনোটা দেখা যাওয়া মানেই বিপদের ঘণ্টা! যদি আপনি এই উপসর্গগুলোর সামান্য উপস্থিতিও টের…

Read More

গর্ভাবস্থায় ডাবের পানি কেন খাবেন ? ডাবের পানির উপকারিতা

গর্ভাবস্থায় ডাবের পানি

ডাবের পানির পুষ্টিগুণ  ডাবের পানিতে প্রচুর পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, রিবোফ্লোবিন, ভিটামিন সি এবং ইলেক্ট্রোলাইট আছে। শুধু তাই নয় এতে রয়েছে ফাইবার, সোডিয়াম, প্রোটিন এবং অল্প পরিমাণে চিনি। এই একটি পানীয় থেকে একজন গর্ভবতী নারী তার প্রয়োজনীয় সব উপাদান পেয়ে থাকে। একজন গর্ভবতী নারীর অবস্যই গর্ভাবস্থায় ডাবের পানি খাওয়া উচিত। ডাবের পানি যে কোন সময় খাওয়া যায় তবে সবচাইতে ভালো হয় যদি ভোরে খাওয়া যায়। এ সময় ডাবের পানি ইলেক্ট্রোলাইট এবং পুষ্টি শরীরে ভালো ভাবে শোষিত হয় কারণ সকালে পাকস্থলী খালি থাকে। এক কাপ ডাবের পানির পুষ্টিগুণ নিম্নরূপ- ক্যালোরি- ৪৬ সোডিয়াম-…

Read More

গরমে গর্ভবতী মায়ের যত্ন

গরমে গর্ভবতী মায়ের যত্ন

গর্ভাবস্থায় এমিনিতেই মায়দের শরীরে রক্ত প্রবাহ বেড়ে যাওয়ার কারণে গরম বেশী অনুভূত হয়। তার উপর যদি আসে গরম কাল তাহলে তো আর কথায় নেই। তবে ভয়ের কোন কারণ নেই। গর্ভাবস্থায় গ্রীষ্ম কাল খুব কঠিন বলে মনে হলেও নীচের টিপস গুলো গরমে গর্ভবতী মায়ের যত্ন নিতে সাহায্য করবে। পর্যাপ্ত পরিমানে পানি পান করুন গরমে সবচেয়ে বেশি যে সমস্যা হয়ে থাকে, তা হল ড্রিহাইড্রেশন বা পানিশূনতা। অতিরিক্ত ঘাম হওয়ার কারণে শরীর থেকে পানি বের হয়ে যায়। যার কারণে ড্রিহাইড্রেশন বা পানি শূন্যতা দেখা দিয়ে থাকে। তাই এইসময় স্বাভাবিক সময়ের থেকে বেশি পরিমাণে…

Read More

গর্ভে যখন যমজ শিশু । কিছু জরুরী বিষয়

গর্ভে যখন যমজ শিশু । কিছু জরুরী বিষয়

যমজ সন্তান হলো একই গর্ভধারনে সৃস্ট দুটি সন্তান।যমজ মনোজাইগোটিক (“অভিন্ন”) হতে পারে, অর্থাৎ তারা একটিমাত্র জাইগোট থেকে বড় হতে পারে পরে বিচ্ছিন্ন হয়ে দুটি এমব্রায়োস গঠন করে, অথবা ডিজাইগোটিক (“ভ্রাতৃসম”), অর্থাৎ তারা আলাদা ডিম্বক থেকে বড় হয়, প্রত্যেকটি নিষিক্ত হয় আলাদা শুক্রানু দ্বারা। যমজ সন্তান কেন হয়? এ নিয়ে মানুষের কৌতূহলের শেষ নেই। গর্ভে একের অধিক সন্তান ধারণ করা অস্বাভাবিক কিছু নয়। অনেক ক্ষেত্রে বংশগত কারণে এটি হতে পারে। এটি প্রকৃতি প্রদত্ত বা গড গিফটেড বলা যেতে পারে। দুই রকমের যমজ সন্তান হতে পারে। অভিন্ন যমজ শিশু (আইডেন্টিক্যাল টুইন) একটি…

Read More