গ্রুপ বি স্ট্রেপটোকক্কাস (Group B streptococcus) | গর্ভকালীন ঝুঁকি

আর্টিকেলটিতে যেসব বিষয় আলোচনা করা হয়েছে -

গ্রুপ বি স্ট্রেপ (Group B strep) বা জিবিএস (GBS) নবজাতকদের মধ্যে মারাত্মক ইনফেকশনের সৃষ্টি করতে পারে। গর্ভবতী নারীদের ৩৬ থেকে ৩৭ সপ্তাহে পরীক্ষা করে এটা প্রতিরোধ করা যেতে পারে। যদি আপনার টেস্ট জিবিএস (GBS) পজিটিভ হয়, তাহলে আপনার শিশুকে সুরক্ষিত রাখতে প্রসবের সময় আপনাকে অ্যান্টিবায়োটিক দিয়ে চিকিৎসা করা হবে। 

গ্রুপ বি স্ট্রেপ (Group B strep) কি? 

গ্রুপ বি স্ট্রেপটোকক্কাস (Group B streptococcus)  বা জিবিএস (GBS) হল এক ধরণের ব্যাকটেরিয়া যা অনেক মানুষের অন্ত্রে প্রাকৃতিকভাবেই থাকে। এই ব্যাকটেরিয়া আপনার যৌনাঙ্গেও বসবাস করতে পারে এবং প্রসব বা শিশু জন্মদানের সময় শিশুর মধ্যে স্থানান্তরিত হতে পারে। গড়ে ১০ থেকে ৩০ শতাংশ গর্ভবতী নারী যৌনাঙ্গ, মলদ্বার এবং আশেপাশের অংশে গ্রুপ বি স্ট্রেপ বহন করে। এই ব্যাকটেরিয়া গ্রুপ এ স্ট্রেপ (group A strep) -এর মত নয়, যা সাধারণত স্ট্রেপ থ্রোটের কারণ হিসেবে পরিচিত।

গ্রুপ বি স্ট্রেপ যৌনসঙ্গমের মাধ্যমে ছড়াতে পারে, কিন্তু একে যৌনসংক্রামক ইনফেকশন হিসেবে বিবেচনা করা হয় না কারণ আপনার গ্যাস্ট্রোইনটেস্টিনাল ট্র্যাক্ট বা পাকস্থলীযন্ত্রতে থাকা ব্যাকটেরিয়া দ্বারাও আপনার যৌনাঙ্গের আশপাশ আক্রান্ত হতে পারে।  

গর্ভাবস্থায় কেন গ্রুপ বি স্ট্রেপ পরীক্ষা করা প্রয়োজন?

যদিও গ্রুপ বি স্ট্রেপ সুস্থ বয়স্কমানুষদের জন্য ক্ষতিহীন, এটা গর্ভেই শিশু মৃত্যু অথবা মারাত্মক ইনফেকশনের কারণ হতে পারে। আর গর্ভাবস্থায় শেষের দিকে গ্রুপ বি স্ট্রেপ পরীক্ষা করানো – এবং টেস্ট পজিটিভ আসলে প্রসবের সময় এন্টিবায়োটিকস দিয়ে সারানো – আপনার শিশুর আক্রান্ত হবার ঝুঁকি অনেকাংশে কমায়। 

এজন্যই দ্য ইউ এস সেন্টারস ফর ডিজিস কন্ট্রোল (U.S. Centers for Disease Control) বা সিডিসি (CDC), দ্য আমেরিকান একাডেমী অব পেডিয়াট্রিক্স (American Academy of Pediatrics) বা এএপি (AAP), এবং দ্য আমেরিকান কলেজ অব অবস্টেট্রিসিয়ান্স এন্ড গাইনেকলোজিস্টস (American College of Obstetricians and Gynecologists) বা  এসিওজি (ACOG) সকল গর্ভবতী নারীদের ৩৬ থেকে ৩৭ সপ্তাহে নিয়ম করে গ্রুপ বি স্ট্রেপ পরীক্ষা করানোর সুপারিশ করেন। 

প্রসবের সময় আপনি যদি গ্রুপ বি স্ট্রেপ এর ঝুঁকিতে থাকেন তাহলে আপনার চিকিৎসা করানো হবে। ঝুঁকিসমূহের মধ্যে রয়েছেঃ

  • গর্ভাবস্থার যেকোনো সময় আপনার গ্রুপ বি স্ট্রেপ এর টেস্ট পজিটিভ আসলে।
  • গর্ভাবস্থার গ্রুপ বি স্ট্রেপ এর কারণে যেকোনো সময় আপনার মুত্রনালীতে ইনফেকশন (urinary tract infection) বা ইউটিআই (UTI) বা ইউরিন কালচারে (urine culture) গ্রুপ বি স্ট্রেপ ধরা পড়লে।
  • আগের বাচ্চায় জিবিএস ডিজিস (GBS disease) থাকলে।

গর্ভবতী নারীদের রুটিন করে পরীক্ষা ও চিকিৎসা করানোর পূর্বে, গড়ে প্রতি ৫০০ জন জীবিত শিশুর ১ জনের জিবিএস ডিজিস রোগ ধরা পড়তো। এই জীবনশঙ্কটাপন্নকারী রোগ শিশুর প্রথম সপ্তাহে (বেশির ভাগ ক্ষেত্রে জন্মের প্রথম ২৪ ঘণ্টার মধ্যে) -ই দেখা যায়। এই সংখ্যা এখন কমে প্রতি ৪০০০ জনে ১ টিতে নেমে এসেছে।

শিশু প্রাথমিক পর্যায়ের জিবিএস ডিজিস (GBS disease)- এ আক্রান্ত হলে কি ঘটতে পারে? 

প্রাথমিক পর্যায়ের জিবিএস ডিজিস রক্তে ইনফেকশন বা সেপসিস (sepsis), নিউমোনিয়া, অথবা অল্প কিছু ক্ষেত্রে মেনিনজাইটিস সৃষ্টি করতে পারে। কিছু শিশু, বিশেষ করে যারা মেনিনজাইটিসে আক্রান্ত, তাদের দীর্ঘ স্থায়ী স্বাস্থ্য সমস্যা, যেমন বধির হওয়া বা দৃষ্টিশক্তি হারানো, সেরিব্রাল পালসি (cerebral palsy) অথবা গঠনগত অক্ষমতা হবে। অল্প কিছুসংখ্যক বাঁচবে না। 

প্রিটার্ম শিশুদের বেঁচে থাকার হার ফুল-টার্ম শিশুদের চেয়ে কম, এবং যারা বেঁচেছে তারাও এই রোগ থেকে দীর্ঘ মেয়াদি সমস্যার তীব্র ঝুঁকিতে থাকে।  

গর্ভাবস্থায় প্রথম ভিজিটে আমাকে কেন গ্রুপ বি স্ট্রেপ (Group B strep) পরীক্ষা করা হয় নি এবং যদি আমার টেস্ট পজিটিভ আসে তাহলে কেন তৎক্ষণাৎ চিকিৎসা দেয়া হয়না? 

গর্ভাবস্থায় ব্যাকটেরিয়া আসা যাওয়া করতে থাকে। তাই শুরুর দিকে করা পরীক্ষা থেকে বলা যায় না যে শিশু জন্মদানের সময় ব্যাকটেরিয়া থাকবে কিনা। আপনি প্রথম দিকে নেগেটিভ থাকতে পারেন এবং প্রসবের সময় ঘনিয়ে এলে পজিটিভ হতে পারেন, অথবা এর উল্টোও হতে পারে। 

৩৬ থেকে ৩৭ সপ্তাহের দিকে পরীক্ষা করা হয় কারণ তখনই যে রেজাল্ট আসে তা পরবর্তী ৫ সপ্তাহে আপনার অবস্থা কি হবে তা ভালভাবে  নিশ্চিত করবে। 

একইভাবে, প্রসবের আগে অ্যান্টিবায়োটিক নেয়া আপনার যৌনাঙ্গের আশেপাশের জায়গাকে পুনরায় আক্রান্ত হওয়া থেকে রক্ষা করে না, তাই –  প্রসবের সময় চিকিৎসা করানো হলে যেমনটা হয় তার বিপরীতে  – পূর্বেই চিকিৎসা করালে আপনার শিশুর মধ্যে গ্রুপ বি স্ট্রেপ স্থানান্তরিত হওয়ার ঝুঁকি কমায় না।

গর্ভাবস্থায় আমার যদি গ্রুপ বি স্ট্রেপ এর ফলস্বরূপ ইউটিআই (UTI) থাকে তাহলে কি হবে? 

যদি প্রস্রাব পরীক্ষায় দেখা যায় যে, আপনার মুত্রনালীতে ইনফেকশন আছে যা গ্রুপ বি স্ট্রেপ এর কারণে হয়েছে তাহলে আপনাকে ওরাল অ্যান্টিবায়োটিক দিয়ে চিকিৎসা করা হবে। ১০০,০০০ এর অধিক “কলোনি ফরমিং ইউনিট” (colony forming units) ব্যাকটেরিয়া থাকলে তা সাধারণত প্রিটার্ম লেবারের ঝুঁকি বাড়ায়। আর অ্যান্টিবায়োটিকস যেহেতু ব্যাকটেরিয়া কমায়, ফলে অ্যান্টিবায়োটিক নিলে ইউটিআই ঠিক হওয়ার পাশাপাশি প্রিটার্ম লেবারের ঝুঁকিও কমে।   

অ্যান্টিবায়োটিকের কোর্স শেষ হলে, ইনফেকশন চলে গেছে কিনা তা জানতে আরেকবার আপনার ইউরিন কালচার (urine culture) পরীক্ষা করতে হবে – যেমনটা গর্ভাবস্থায় অন্যান্য ইউটিআই (UTI) এর জন্য করতে হয়।

যদিও ওরাল অ্যান্টিবায়োটিকস আপনার মূত্রনালীতে ব্যাকটেরিয়া কমাবে, তবু কিছু ব্যাকটেরিয়া আপনার যৌনাঙ্গের আশেপাশে থেকে যেতে পারে অথবা পুনরায় ফিরে আসতে পারে।

আপনার প্রস্রাবে গ্রুপ বি স্ট্রেপ (Group B strep) থাকলে বুঝা যায় যে আপনার যৌনাঙ্গে এটা প্রচুর পরিমাণে রয়েছে, সুতরাং প্রসবের সময় আপনাকে আইভি (IV) অ্যান্টিবায়োটিকস দেয়া হবে।  

কিভাবে গ্রুপ বি স্ট্রেপ টেস্ট করা হয়?

ডাক্তার তুলা দিয়ে আপনার যৌনাঙ্গ এবং মলদ্বারের নিম্নভাগ মুছবেন। তারপর নমুনাটি কালচারে বেড়ে ওঠার জন্য একটি ল্যাবে পাঠানো হবে, যেটা গ্রুপ বি স্ট্রেপ আছে কিনা তা সনাক্ত করবে। রেজাল্ট সাধারণত দুই থেকে তিন দিনের মধ্যে পাওয়া যায়।

কিছু হাসপাতালে প্রসবের সময় দ্রুত গ্রুপ বি স্ট্রেপ টেস্ট করানো যায়, যেটার রেজাল্ট এক ঘণ্টার মধ্যে পাওয়া যায়। কিন্তু দ্রুত টেস্ট ততটা সংবেদনশীল হয় না যতটা সময় গ্রুপ বি স্ট্রেপ এর ইনকিউবেট হতে সময় লাগে, তাই সিডিসি (CDC), এসিওজি (ACOG), এবং এএপি (AAP) এখনো ৩৬ থেকে ৩৭ সপ্তাহের মধ্যে পরীক্ষা করা সুপারিশ করে। 

গর্ভাবস্থায় আমার গ্রুপ বি স্ট্রেপ (Group B strep) টেস্ট পজিটিভ হলে কি ঘটে? 

পজিটিভ রেজাল্ট মানে হল আপনি ব্যাকটেরিয়া বহন করছেন, এর মানে এটা নয় যে আপনি বা আপনার শিশু অসুস্থ হবেই, এমনকি এর জন্য কোন চিকিৎসা নেয়া না হলেও।  চিন্তিত হবেন না। আপনার শিশু অসুস্থ হবার ঝুঁকি খুবই কম, বিশেষ করে যদি সে ফুল-টার্ম হয়, আপনার জ্বর না থাকে, এবং ডেলিভারির অনেক আগেই যদি আপনার পানি না ভাঙ্গে। 

যাই হোক, প্রসবের সময় এন্টিবায়োটিক নিলে আপনার শিশুর আক্রান্ত হবার ঝুঁকি অনেকাংশে কমে যায়। উদাহরণস্বরূপ, যদি আপনি অন্য কোন ঝুঁকি ব্যতীত জিবিএস (GBS) বাহক হন, তাহলে বিনা চিকিৎসায় আপনার শিশুর আক্রান্ত হবার সুযোগ ২০০ এর মধ্যে ১ বার, আর আপনার চিকিৎসা করানো হলে তা হবে ৪০০০ এর মধ্যে ১ বার।

চিকিৎসা করা হলে প্রসবকালে বা প্রসব পরবর্তী অবস্থায় আপনার নিজেরও জিবিএস (GBS) ইনফেকশন (যেমন ইউটারিন ইনফেকশন) হবার ঝুঁকি কমায়। 

যদি আপনার গ্রুপ বি স্ট্রেপ টেস্ট পজিটিভ হয়, তাহলে প্রসব বেদনা শুরু বা পানি ভাঙ্গা, যেটাই প্রথমে হয়, সাথে সাথেই আপনাকে আইভি (IV) এন্টিবায়োটিকস দেয়া হবে। আপনার যদি সিজারিয়ান সেকশন হয়, সেক্ষেত্রেও এন্টিবায়োটিকস দেয়া হবে, এবং এই এন্টিবায়োটিক গুলো গ্রুপ বি স্ট্রেপ সারানোর জন্য যথেষ্ট হবে।

স্বভাবত, শিশু জন্মদানের কমপক্ষে চার ঘণ্টা আগে আপনি এন্টিবায়োটিকস শুরু করবেন। যদি আপনার প্রসব বেদনা এর চেয়ে কম সময় ধরে চলে, এমনকি দু ঘণ্টা আগের এন্টিবায়োটিকস আপনার শিশুর ঝুঁকি কমায়।  

যদি গ্রুপ বি স্ট্রেপ এর রেজাল্ট পাওয়ার আগেই আমার প্রসব বেদনা শুরু হয় তাহলে কি হবে? 

আপনি যখন প্রসব করতে যাচ্ছেন তখন যদি আপনি না জানেন যে আপনি ব্যাকটেরিয়া বহন করছেন কি না, আপনাকে অ্যান্টিবায়োটিকস দেয়া হবে যদি এই ঝুঁকির চিহ্নগুলোর যেকোনো একটিও আপনার থাকেঃ 

  • আপনি প্রিটার্ম লেবারে যান, বা ৩৭ সপ্তাহের আগে আপনার পানি ভাঙ্গে
  • আপনার পানি ভাঙ্গা এবং ডেলিভারির মাঝে লম্বা বিরতি (১৮ ঘণ্টা বা তার বেশি) ঘটে
  • প্রসবের সময় আপনার জ্বর আসে (১০০.৪ ডিগ্রী ফারেনহাইট বা তার বেশি) 

যদি র‍্যাপিড টেস্টের ব্যবস্থা থাকে এবং আপনার কোন ধরণের ঝুঁকির সম্ভাবনা না থাকে, আপনার সেবাকারীরা টেস্ট করাবেন এবং রেজাল্ট পজিটিভ হলে আপনার চিকিৎসা করবেন। (যদি র‍্যাপিড টেস্ট নেগেটিভ থাকে কিন্তু আপনার মাঝে ঝুঁকির সম্ভাবনা দেখা যেতে থাকে, আপনার চিকিৎসা করা হবে কারণ র‍্যাপিড টেস্ট কিছু জিবিএস (GBS) কেস মিস করতে পারে।) 

যদি উপরের উল্লেখ করা ঝুঁকিসমূহের কোনটি আপনার নাও থাকে, তবুও আপনার পূর্ববর্তী গর্ভাবস্থায় গ্রুপ বি স্ট্রেপ থেকে থাকলে, ডাক্তাররা এন্টিবায়োটিকস শুরু করার অপশনটাও আলোচনা করবেন।

প্রসবের সময় অ্যান্টিবায়োটিক নেয়ার ফলে কি কি ঝুঁকি বা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হতে পারে? 

আপনার যদি আগে অ্যালার্জিজনিত প্রতিক্রিয়া না থেকে থাকে, আপনাকে সম্ভবত পেনিসিলিন দেয়া হবে, যা গ্রুপ বি স্ট্রেপ এর জন্য পছন্দনীয় ঔষধ এবং শিশুদের জন্য নিরাপদ। গর্ভবতী নারীদের দশ শতাংশ যারা পেনিসিলিন নেয় তাদের মৃদু অ্যালার্জিজনিত প্রতিক্রিয়া, যেমন র‍্যাশ দেখা দেয়। খুবই দুর্লভক্ষেত্রে (১০০০০ এর ১ টি তে), পেনিসিলিন তীব্র  অ্যালার্জিজনিত প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে যার জন্য ইমারজেন্সী চিকিৎসার প্রয়োজন হয়। 

যদি আপনি পিনিসিলিনের প্রতি অ্যালার্জিক হন, আপনার শিশুর জন্য অন্য এন্টিবায়োটিকও কার্যকরী ও নিরাপদ হবে। কোনটি আপনার জন্য সবচেয়ে ভাল হবে সে ব্যাপারে আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলুন। 

শিশুর মধ্যে গ্রুপ বি স্ট্রেপ ইনফেকশনের উপসর্গসমূহগুলো কি কি? 

যদি আপনি জিবিএস (GBS) বাহক হন, তাহলে প্রসবের সময় আপনাকে এন্টিবায়োটিক দেয়া হোক বা না হোক – আপনার শিশুর মধ্যে এর কোন উপসর্গ দেখা যাচ্ছে কিনা তা পর্যবেক্ষণ করা হবে।

গবেষণায় দেখা গেছে যে ৯০ শতাংশ শিশু যাদের প্রাথমিক পর্যায়ের  জিবিএস (GBS) থাকে তাদের মধ্যে জন্মানোর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অসুস্থতার উপসর্গগুলো দেখা যাওয়া শুরু হয়ঃ 

  • শ্বাস প্রশ্বাসে জটিলতা
  • নীল হয়ে যাওয়া
  • অস্বাভাবিক বিরক্তিভাব
  • অস্বাভাবিক ক্লান্তিভাব
  • তীব্র কাঠিন্যতা
  • খাওয়াতে সমস্যা
  • নিষ্ক্রিয়তা (ঘুম থেকে উঠানো কষ্টকর)
  • খিঁচুনি
  • বমি করা
  • জ্বর 

যদি আপনি হাসপাতালে থাকেন এবং আপনার নবজাতকের মধ্যে এসব উপসর্গের যেকোনোটি দেখতে পান, তাহলে তৎক্ষণাৎ সাহায্য নিন। 

যদি আমার গ্রুপ বি স্ট্রেপ টেস্ট পজিটিভ আসে, তাহলে আমার শিশু জন্মের পর কি হবে? 

যদি ডাক্তাররা এ বিষয়ে উদ্বিগ্ন থাকে যে আপনার শিশু গ্রুপ বি স্ট্রেপ দ্বারা আক্রান্ত হতে পারে (কারণ ডেলিভারির সময় আপনি আক্রান্ত ছিলেন বা আপনার শিশুর জ্বর থাকে), তারা শিশুকে ডেলিভারির পর পরই অ্যান্টিবায়োটিক দেয়া শুরু করবে এবং রক্ত পরীক্ষাসহ, ফুল ওয়ার্কআপ করাতে বলবে। যদি তার শ্বাস প্রশ্বাসে সমস্যা হয়, বুকের এক্সরে করা হবে। আর যদি শিশুর জ্বর না সারে, তাহলে স্পাইনাল ট্যাপও করতে বলবে। 

যদি আপনার শিশু ইনফেকশনের কোন চিহ্ন না দেখায়, আপনি সাধারণত তাকে এক বা দুই দিন পর বাসায় নিয়ে যেতে পারেন। 

আপনি যদি এর আগে বাসায় যেতে চান, ২৪ ঘণ্টা পরে আপনার বাচ্চার ডাক্তার ডিসচার্জের অনুমতি দিতে পারে যদি-

  • জন্মদানের কমপক্ষে চার ঘণ্টা আগে আপনি অ্যান্টিবায়োটিকস গ্রহণ করেন
  • প্রসবের সময় আপনার মধ্যে ইনফেকশনের কোন চিহ্ন না দেখা যায়
  • আপনার শিশু ফুল-টার্ম, দেখতে সুস্থ, এবং অন্য কোন সমস্যা না থাকে
  • আপনি বাসায় পর্যবেক্ষণের জন্য ডাক্তারের দেয়া নির্দেশাবলী সম্পূর্ণ বুঝতে পেরেছেন
  • কোন ইমারজেন্সিতে আপনি দ্রুত সাহায্য পেতে সমস্যা হবেনা

অন্যথায়, আপনার শিশু পর্যবেক্ষণের জন্য কমপক্ষে ৪৮ ঘণ্টা হাসপাতালে থাকবে। 

যদি আপনার শিশু প্রিম্যাচিউর হয়, সম্ভবত তার কিছু পরীক্ষা করা হবে এবং দীর্ঘক্ষণ রাখা প্রয়োজন হতে পারে, এমনকি যদিও আপনাকে প্রসবের সময় চিকিৎসা প্রদান করা হয়ে থাকে এবং শিশুর মধ্যে ইনফেকশনের কোন চিহ্ন দেখা না যায়। এর কারণ হল প্রিম্যাচিউর শিশুরা জিবিএস ডিজিস (GBS disease) -এ  আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা তুলনামূলক বেশি থাকে এবং যদি আক্রান্ত হয় তাহলে বেশি অসুস্থ হয়ে যায়। 

আমার শিশুর কি পরবর্তীতে গ্রুপ বি স্ট্রেপ ইনফেকশন হতে পারে? 

হ্যাঁ। আপনার টেস্ট পজিটিভ হোক বা না হোক, প্রথম সপ্তাহ পরে আপনার শিশুর গ্রুপ বি স্ট্রেপ ইনফেকশন হওয়া সম্ভব।  এটা সাধারণত তিন মাসের মধ্যে ঘটে এবং লেট-অনসেট জিবিএস ডিজিস (late-onset GBS disease) নামে পরিচিত। যুক্তরাষ্ট্রে শিশুদের মধ্যে লেট-অনসেট জিবিএস ডিজিস, আর্লি-অনসেট জিবিএস ডিজিস (early-onset GBS disease) এর চেয়ে কিছুটা বেশি ঘটে থাকে। 

লেট-অনসেট জিবিএস, আর্লি-অনসেট জিবিএস এর মত একই সমস্যাগুলোর সৃষ্টি করতে পারে এবং প্রতি ১০,০০০ শিশুর মধ্যে ৩ জনকে আক্রান্ত করে। আর্লি-অনসেট জিবিএস এর ক্ষেত্রে, প্রিম্যাচিউর শিশুদের ঝুঁকি বেশি থাকে। লেট-অনসেট জিবিএস এর বেলায় মেনিনজাইটিস হওয়া অপেক্ষাকৃত বেশি স্বাভাবিক। 

যেসব চিহ্ন দেখা গেলে আপনার উচিত আপনার শিশুর ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করাঃ 

  • অস্বাভাবিক বিরক্তিভাব
  • অস্বাভাবিক ক্লান্তিভাব
  • তীব্র কাঠিন্যতা
  • খাওয়াতে সমস্যা
  • নিষ্ক্রিয়তা (ঘুম থেকে উঠানো কষ্টকর)
  • খিঁচুনি
  • বমি করা
  • জ্বর 

পরবর্তীতে জিবিএস (GBS) ডিজিস হওয়া প্রতিরোধ করার কোন উপায় আছে কি? 

প্রসবের সময় অ্যান্টিবায়োটিকস নেওয়া পরবর্তীতে জিবিএস (GBS) ডিজিস হওয়া প্রতিরোধ করে না। যেসব শিশু পরবর্তীতে জিবিএস (GBS) রোগে আক্রান্ত হয় তাদের শুধুমাত্র অর্ধেক শিশুদের মা’রা গ্রুপ বি স্ট্রেপ (Group B strep) এর বাহক, এবং বাকি অর্ধেক শিশুরা কিভাবে ব্যাকটেরিয়া দ্বারা আক্রান্ত হয়েছে তা কেউই জানে না, তাই প্রতিরোধ করা মুশকিল। 

সবার জন্য শুভকামনা।

Related posts