শিশুর বেড়ে ওঠা । নবম মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । নবম মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । নবম মাস নয় মাস বয়সে বাচ্চারা হামাগুড়ি / ক্রলিং করে এবং বেশিরভাগ বাচ্চাই মোটামুটি স্বাধীনভাবে উঠে বসতে পারে। তবে, অন্যের সাহায্য ছাড়া হাঁটা শুরু করতে আরো এক দু- মাস কিংবা তার চেয়ে কিছু বেশিদিন  লাগতে পারে। এ সময় শক্ত কিছু ধরে উঠে দাঁড়াবার চেষ্টা করার প্রবণতা দেখা যায়, কিংবা আপনার হাত ধরে ‘হাঁটি হাঁটি –পা পা’ করতে খুব পছন্দ করে। অনেক সময় নিচু হয়ে বাচ্চাকে হাঁটানো আমাদের জন্য বেশ কঠিন হয়ে যায়, কিন্তু বাচ্চাদের এই নতুন কর্মকাণ্ডে সীমাহীন আগ্রহের কোনো সীমা থাকে না। তাই, অনেকে ওয়াকার…

বিস্তারিত পড়ুন

শিশুর বেড়ে ওঠা । অষ্টম মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । অষ্টম মাস

অষ্টম মাসে আপনার বাচ্চা আরো একটিভ আর চঞ্চল হবে। এসময়ের স্বাভাবিক আলোচনার বিষয়ঃ হামাগুড়িঃ বাচ্চারা সাধারণত হাত দিয়ে নিজেকে সামনের দিকে আগাতে শেখে,  তারপর হাত আর হাঁটুতে  ভর দিয়ে উঠতে চেষ্টা করে।  তারপর, সেই ভঙ্গিতে সামনে আগানোর, এবং পেছানোর প্র্যাকটিস শুরু করতে পারে।   হামগুড়ির ভঙ্গি করতে শেখার পরও অনেক বাচ্চা হামাগুড়ি দেয় না, কিংবা দিতে পছন্দ করে না। অনেকে আবার হামাগুড়ি না দিয়ে হাত বুক আর পেটের উপর ভর করে চলাচল করতে পছন্দ করে। যেভাবেই হোক, ক্রিপিং কিংবা হামাগুড়ি শুরু করলে বাচ্চার হাত ও পায়ের পেশিগুলো আরো মজবুত ও…

বিস্তারিত পড়ুন

শিশুর বেড়ে ওঠা । সপ্তম মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । সপ্তম মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । সপ্তম মাস সপ্তম মাসে প্রবেশ করার পর বাচ্চারা আরও বেশী চঞ্চল ও আরও বেশী আবেগপ্রবণ হতে থাকে। সেইসাথে মানবশিশু হিসেবে নিজস্ব স্বকীয়তা , স্বাধীনতা এবং ব্যাক্তিত্ব গঠন ও প্রকাশিত হতে শুরু করে। এ বয়সে বাচ্চা তার চারপাশের সবকিছুর প্রতি খুব কৌতূহলী হয়। এই কৌতূহল তার মানসিক বিকাশকে তরান্বিত করে। বাচ্চার সাথে কথোপকথন, তার প্রয়োজনে সাড়া দেয়া, নিরাপদ ও বয়স উপযোগী বিভিন্ন খেলনা দিয়ে শিশুর মনোরঞ্জন করা এবং সর্বোপরি সার্বক্ষণিক নজরদারি নিশ্চিত করতে হবে। আগের মাসগুলোর চাইতে তুলনামূলকভাবে বেশী চটপটে, ছটফটে ও খেলাপ্রিয় হবে। ঘুম ও খাবারের…

বিস্তারিত পড়ুন

শিশুর বেড়ে ওঠা । ষষ্ট মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । ষষ্ট মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । ষষ্ট মাস পঞ্চম থেকে ষষ্ঠ  মাস আপনার বাচ্চার বৃদ্ধির ক্ষেত্রে একটি নতুন অধ্যায় এর সূচনা। এ সময় বাচ্চার ঘাড় এবং বাহুর পেশীগুলো অনেক খানি গঠিত হয়ে যায় যা তাকে তার অবস্থান থেকে যেকোনো একদিকে গড়িয়ে যেতে সাহায্য করে। তার নতুন নতুন এসব ভঙ্গিমা আপনাকে মুগ্ধ করবে। সেই সাথে গড়িয়ে পরে যাওয়া, ব্যাথা পাওয়া কিংবা বাচ্চাদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ কোন জিনিসপত্রের (বিদ্যুতের তার, চার্জার কিংবা গরম কিছু) সংস্পর্শে আসার ঝুঁকি অনেক খানি বেড়ে যায়। সুতরাং সার্বক্ষণিক নজরদারি ব্যাবস্থা থাকা এবং বাসার পরিবেশ ও আসবাবপত্র শিশু বান্ধব (child proof)…

বিস্তারিত পড়ুন

শিশুর বেড়ে ওঠা । পঞ্চম মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । পঞ্চম মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । পঞ্চম মাস চতুর্থ থেকে পঞ্চম মাসে পদার্পণের সময়টা অনেকটাই চতুর্থ মাসের সাথে মেলে। তবে এসময় যে প্রশ্নগুলো  মুখ্য হয়ে দাঁড়ায় সেগুলো হলো- বাচ্চাকে কি সলিড খাবার শুরু করা উচিত হবে? বাচ্চা কবে বসতে/ হামাগুড়ি দিতে শিখবে? বাচ্চার দাঁত ওঠার সঠিক সময় কোনটি? এসময়টিতে বাচ্চা প্রতিনিয়ত অনেক কিছু শিখবে, বাবা –মা এবং পরিবারের অন্যান্যদের আলাদা করে চিহ্নিত করতে পারবে, তার কাকে পছন্দ, আর কাকে নয়, তাও অনেকটা প্রকাশ করতে জানবে। শারীরিকভাবে সুস্থ থাকলে এই বয়সে সে অনেক হাসিখুশি থাকবে। শ্রবন ও দৃষ্টিশক্তি আরও সুগঠিত হতে থাকবে। কণ্ঠস্বরের…

বিস্তারিত পড়ুন

শিশুর বেড়ে ওঠা | চতুর্থ মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । চতুর্থ মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । চতুর্থ মাস তিন মাস থেকে চার মাসে পদার্পণ করার সময় ধীরে ধীরে আপনার বাবু চারপাশের বিভিন্ন জিনিসের দিকে আরো বেশী কৌতূহলী হবে, রঙিন এবং সচল জিনিসপত্রের প্রতি আকৃষ্ট হবে। এসময় তাকে নিরাপদ বিভিন্ন সফট-টয় , শব্দ যুক্ত খেলনা যেমন র‍্যাটল বা ঝুনঝুনি জাতীয় খেলনা দেবেন। মোবাইল এবং অন্যান্য ডিভাইসের রঙিন ছবি এবং মিউসিকের প্রতি শিশু আকৃষ্ট হবে, তবে, এসব ডিভাইস থেকে বাচ্চাদের যথাসম্ভব দূরে রাখতে হবে তাদের সঠিক শারীরিক ও মানসিক বিকাশের জন্য। মনে রাখবেন, এসব ডিভাইসের র‍্যাডিয়েশান মানুষের শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। চার মাসে পদার্পণের…

বিস্তারিত পড়ুন

শিশুর বেড়ে ওঠা | তৃতীয় মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । তৃতীয় মাস

জন্মের পরপরই নবজাতক শরীরের ঘ্রাণ ও কণ্ঠস্বরের মাধ্যমে মাকে চিনতে পারলেও তার অনুভূতি সেভাবে প্রকাশ করতে শেখেনা। তৃতীয় মাসের দিকে এসে বা দুই মাস অতিক্রম করার পর মা, বাবা কিংবা প্রিয় কোনো  মুখ দেখে সে তার অনুভূতি প্রকাশ করতে শুরু করে। হয়তো সে অপরিচিত কারো সাথেও হাসবে যারা তার সাথে হাসে বা কথা বলে কিন্তু সে তার প্রিয় মানুষদের ক্ষেত্রে হাসি বা উত্তেজনার মাধ্যমে তার অনুভূতি প্রকাশ করবে। এবয়সী প্রায় অর্ধেক শিশুই এ সময় বাবা মাকে দেখলে বা তাদের গলা শুনলে প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করে। এ মাসে শিশুর মস্তিষ্কের উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন…

বিস্তারিত পড়ুন

শিশুর বেড়ে ওঠা | দ্বিতীয় মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা । দ্বিতীয় মাস

জন্মের পর থেকে নবজাতকের প্রথম কয়েক মাস সময়টি বাবা মায়েদের জন্য  একটু কঠিন। তবে যেহেতু এক মাস অতিক্রম হয়েছে, আপনি অনেকটাই নবজাতকের দেখাশোনায় একটু একটু করে পারদর্শী হয়ে উঠছেন। রাত জাগা আর গর্ভকালীন শারিরিক ধকলের কারণে আপনার শরীর ও মন কিছুটা বিক্ষিপ্ত থাকলেও , এই সময়ের সবচেয়ে আনন্দময় যে ব্যাপারটি হয়ে থাকে, তা হলো আপনার সদ্য এক মাস পেরুনো ছানাটি হাসতে শেখা শুরু করতে পারে। দ্বিতীয় মাসে শিশুর খাওয়া সাধারণত ব্রেস্টফীড করা ১ মাস বয়সী শিশুরা প্রতি ২-৩ ঘণ্টা অন্তর খেতে চাইবে। তবে কারো কারো ক্ষেত্রে এই গ্যাপটি আরেকটু বেশি…

বিস্তারিত পড়ুন

শিশুর বেড়ে ওঠা | প্রথম মাস

শিশুর বেড়ে ওঠা। প্রথম মাস

প্রায় নয় মাসের উৎকণ্ঠা, প্রতীক্ষা আর শারীরিক ধকলের চড়াই উৎরাই পার করে একজন মা জন্ম দেন একটি  মানব শিশুর। সন্তানকে প্রথমবারের মতো এই পৃথিবীর আলোতে দেখার সেই মুহুর্ত সব বাবা মায়ের স্মৃতিতে জায়গা দখল করে নেয় আজীবনের জন্য। কিন্তু সন্তান জন্ম নেবার পর শুরু হয় নতুন ভাবনা নতুন উৎকণ্ঠা। কিভাবে নবজাতকের যত্ন নেয়া হবে, কিভাবে ছোট এই নাজুক প্রাণটিকে পৃথিবীর বুকে টিকে থাকতে আর বেড়ে উঠতে সাহায্য করবে সেই ভাবনায় নতুন মা বাবা প্রতি মুহুর্তে সদা সতর্ক থাকেন। আর প্রথমবার প্যারেন্টস হলে তো কথাই নেই। এই সতর্কতা অনেক সময় আতংকে…

বিস্তারিত পড়ুন