Baby wipes and Chemical : বেবীর ত্বকে আমরা কি ব্যাবহার করছি?

ইদানিং অনেক মায়ের মধ্যেই বাচ্চার ন্যাপী পরিবর্তনের সময় ‘Wipes’ ব্যবহারের প্রবণতা দেখা যায়। অনেকেই বাচ্চার ‘diaper area’তে র‍্যাশের সমস্যার কথা বলে থাকেন। বাচ্চাদের র‍্যাশ বিভিন্ন কারণে হতে পারে, তবে wipes ব্যাবহার করার কারণে র‍্যাশ এখন একটি সাধারণ সমস্যা।

 

আমরা কিন্তু একটু গভীরে চিন্তা করলেই বুঝতে পারি, যেকোনো কৃত্রিম জিনিসেই ক্যামিক্যাল থাকে- কোন প্রয়োজন ছাড়া নবজাতকের শরীরে, বিশেষ করে মল-মূত্র পরিষ্কার করার ক্ষেত্রে এ ধরণের জিনিষ কি আদৌ উপকারী ? প্রস্তুতকারক/বিক্রেতা অনেক কথাই বলে থাকেন কিন্তু বিজ্ঞাপনের রঙিন মোড়কের ভেতর আসলে কি থাকে সেটাই প্রশ্ন। সেক্ষেত্রে আপনাকেই বুঝতে হবে বাচ্চার জন্য কোনটি প্রয়োজনীয় অথবা ক্ষতিকর। ফ্লাস্কে করে গরম পানি রেখে দিন, যখনই ন্যাপি বা ডায়াপার পরিবর্তনের প্রয়োজন হবে, একটি পরিষ্কার নরম সূতি-কাপড় হাল্কা গরম পানি দিয়ে দিয়ে মুছিয়ে দিন। Wipes – এ ব্যাবহৃত হয় polyethylene glycol (PEG) , polypropylene glycol (PPG) –এ সমস্ত ক্যামিক্যাল যা আপনার বাচ্চার নরম ত্বকের জন্য ক্ষতিকর।

 

বাচ্চাদের স্কিন কেয়ার, সাবান , শ্যাম্পু ইত্যাদির কেনার সময় ক্ষেত্রে নিম্নোক্ত ৩ টি জিনিষ পরিহার করার চেষ্টা করুনঃ

১। Parabens ঃ বলতে গেলে বেশিরভাগ সাবান, শ্যাম্পু ইত্যাদিতে ‘প্যারাবেন’ এর উপস্থিতি থাকে – প্রডাক্টের লেবেলে paraben অথবা benzoic acid and propyl ester- এই নাম গুলোর উপস্থিতি আছে কিনা দেখে নিন। থাকলে এসব আইটেম যথাসম্ভব পরিহার করুন।

 

২। Triclosan/antibacterial element in skin caresঃ বেবি স্কিন কেয়ার এবং কস্মেটিক্স কেনার সময় antibacterial কিছু বাছাই করার প্রয়োজন নেই। এমনকি আমাদের বাজারে বহুল প্রচলিত অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল সাবান, টুথপেস্ট, বডি-ওয়াশ এগুলো থেকেও দূরে থাকা ভালো। অনেকে ডেটল ইত্যাদি দিয়ে বাচ্চার কাপড় ধুয়ে থাকেন- এটিও ক্ষতিকর বাচ্চার ত্বকের জন্য। মনে রাখবেন, আমাদের শরীরে অনেক ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়ার সাথে সাথে অসংখ্য প্রয়োজনীয় ব্যাকটেরিয়া থাকে, যা অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল প্রডাক্ট ব্যাবহার করলে ধ্বংস হয়ে যায়, এবং বাচ্চার স্বাভাবিক রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়, allergy ইত্যাদিতে ভোগার সম্ভবনাও বেড়ে যায়। সুতরাং হাইজিন নিয়ে সতর্ক থাকুন, কিন্তু অতিরিক্ত সতর্ক হতে গিয়ে বাচ্চার স্বাভাবিকভাবে পৃথিবীর পরিবেশে খাপ খাইয়ে নেয়ার ক্ষমতা নষ্ট না হয়-সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে।

 

-৩।-Fragrance- সুগন্ধি-যুক্ত প্রডাক্ট মানেই কেমিক্যাল- এবং ক্ষতিকর ক্যামিকাল। সুতরাং সুগন্ধি-যুক্ত লোশান, শ্যাম্পু, ওয়াশ, ডায়াপার, ওয়াইপ্স- সবই পারতপক্ষে পরিহার করুন, বিশেষ করে নবজাতকের ক্ষেত্রে। অরগ্যানিক ভালো ব্র্যান্ডের প্রডাক্ট কেনা সম্ভব না হলে, প্রাকৃতিক (ভেজাল-মুক্ত) সামগ্রী ব্যাবহার করুন।

 

– এছাড়াও আর কিছু প্রডাক্ট যেগুলো বাচ্চাদের ক্ষেত্রে ব্যাবহার করা একেবারেই ঠিক নয়, কিন্তু আমদের দেশে যথেষ্ট প্রচলিত, সেগুলো হোলো ট্যাল্ক (ট্যালকম পাউডার) , সরিষার তেল এবং বিভিন্ন সাধারণ মানের বেবি অয়েল।
পরিশেষে বলতে চাইঃ নবজাতক এবং ছোট শিশুদের খাবার এবং ত্বক খুবই স্পর্শকাতর দুটি বিষয়। পড়ুন , জানুন, সচেতন হন। যেকোনো সমস্যায় এর-ওর কাছ থেকে পরামর্শ নেয়ার আগে নিজেই একটু স্টাডি করুন, আজকাল অনলাইনে পড়াশোনার প্রচুর সুযোগ।

 

সবার জন্য শুভকামনা।

Fairyland

Related posts

Leave a Comment