বাচ্চা কোন বয়স থেকে দাঁড়াতে শেখে?

বাচ্চা কোন বয়স থেকে দাঁড়াতে শেখে?

প্রথমবারের মত দাঁড়ানো এবং দাঁড়িয়ে থেকে নিচের দিকে তাকানো, এগুলো একটা ছোট্ট শিশুর জন্য খুবই রোমাঞ্চকর বিষয়। আপনার শিশু যখন দাঁড়াতে পারে তখন তার জন্য সম্পূর্ণ নতুন একটা জগতের দরজা খুলে যায়। শিশুর স্বাভাবিক বৃদ্ধি এবং আত্মবিশ্বাসের জন্য হঠাৎ করেই নতুন এই দক্ষতাটি কিন্তু খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

Read More

বাচ্চা কোন বয়স থেকে উপুড় হতে বা গড়াতে শেখে?

বাচ্চা কোন বয়স থেকে উপুড় হতে বা গড়াতে শেখে?

যখনই আপনার ছোট্ট সন্তান অঙ্গ সঞ্চালনের ব্যাপারে দক্ষ হয়ে যাবে, এরপর থেকেই ওকে এপাশ-ওপাশ উল্টে যেতে দেখবেন প্রতিনিয়ত। প্রথমবারের মত নিজে নিজে উপুড় হতে পারা বা গড়ানো, বাচ্চা এবং বাবা-মা দুজনের জন্যই আশ্চর্যজনক, আর যদি আপনার বাচ্চাকে পেট থেকে পিঠের দিকে উল্টাতে দেখেন তাহলে খুব একটা অবাক হবেন না , কেননা অতি শীঘ্রই এই ব্যাপারটা আপনার সন্তানের সবচাইতে প্রিয় খেলায় পরিণত হবে। হাত, গলা, পিঠ এবং শরীরের বাড়ন্ত শক্তি দিয়ে আপনার সন্তান শরীরের নড়াচড়া করার বা গড়াগড়ি করার মতো নতুন নতুন পদ্ধতি আবিষ্কার করবে। তবে এই মুহুর্তে আপনাকে অবশ্যই অনেক…

Read More

বাচ্চা কোন বয়স থেকে হামাগুড়ি দেয়া শুরু করে?

বাচ্চা কোন বয়স থেকে হামাগুড়ি দেয়া শুরু করে?

হামাগুড়ি হচ্ছে আপনার শিশুর শারীরিক দক্ষতার ব্যাপারে সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। আজকের আলোচনার মূল বিষয়গুলো হচ্ছে- বাচ্চা কখন থেকে হামাগুড়ি দেয়া শুরু করে, কিভাবে হামাগুড়ি দিতে শিখে, আপনি কতটুকু সাহায্য করতে পারেন, হামাগুড়ি না দিলে করণীয় কি, হামাগুড়ি দেয়ার পরের ধাপ কি? হামাগুড়ি হচ্ছে আপনার শিশুর কর্মদক্ষ হয়ে ব্যাপারে প্রথম এবং সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। প্রথাগত রীতি অনুযায়ী, প্রথমে ও নিজের ভারসাম্য রক্ষা করতে শিখবে হাতের তালু এবং হাঁটুর উপর ভর দিয়ে। এরপর ও বুঝতে পারবে যে হাঁটুর উপর ভর করে সামনে এবং পিছনে নড়াচড়া করা যায়। এবং একই সময়ে, বাড়ন্ত শরীরের…

Read More

বাচ্চা কোন বয়স থেকে বসতে শেখে?

বাচ্চা কোন বয়স থেকে বসতে শেখে?

মেঝে জুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে খেলনা… হ্যা নিঃসন্দেহে এটা খুবই ভালো; তবে আপনার বাচ্চা কি নিজে থেকেই সোজা হয়ে বসে দুই হাত দিয়ে খেলছে বা খেলতে পারে? যদি তাই হয় তাহলে তো সোনায় সোহাগা। বেশ কয়েকমাস চিৎ হয়ে এবং পেটের উপর ভর দিয়ে শুয়ে কাটানোর পর আপনার বাচ্চা হয়তো কিছু পরিবর্তনের জন্য প্রস্তুত হয়ে যাবে। বাচ্চার বয়স যখন ৩ অথবা ৪ মাস তখন থেকে ( অথবা যখন ও নিজের মাথাটাকে সোজা করে রাখতে শিখবে) তাকে মাঝে মাঝে সাপোর্ট দিয়ে বসতে দেয়া হলে সে তার চারপাশের দুনিয়া সম্পর্কে আরও বেশি কৌতূহলী…

Read More

বয়স অনুযায়ী বাচ্চার খেলনা কেমন হওয়া উচিত

বয়স অনুযায়ী বাচ্চার খেলনা কেমন হওয়া উচিত

শিশুরা অনুকরণ প্রিয়। আর অনুকরণটা তখনই রপ্ত হয় যখন পূর্ণ মনোযোগ থাকে। আপনার বাচ্চা যখন লেগো খেলনা দিয়ে একটা কিছু বানায় অথবা আপনার ছুঁড়ে দেয়া বলটা যখন লুফে নেয় তখন কি ওর মনোযোগী চাহনিটা লক্ষ্য করেছেন; আদতে খেলনা বাচ্চাদের জন্যে শুধুই খেলনা নয় বরংচ একেকটা খেলনা একেক ধরনের শিক্ষা বলা যায়।

Read More

৯-১২ মাস বয়সী শিশুর বিকাশে যেভাবে সাহায্য করবেন

৯-১২ মাস বয়সী শিশুর বিকাশে যেভাবে সাহায্য করবেন

৯-১২  মাসে শিশুর পরিবর্তনীয় বৈশিষ্ট্য বাবা মা তাদের শিশুর প্রথম ও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষক । কিন্তু তাই বলে তাকে কিছু শেখাবার জন্য আপনার নিজেকে কোনো চাপের মধ্যে ফেলতে হবেনা। শিশুদের ব্যাপারে বিস্ময়কর যে জিনিস সেটা হচ্ছে তারা তাদের পারিপার্শ্বিক পরিবেশ থেকেই শিখতে থাকে। আপনি যখন গান করেন, কথা বলেন, এবং আপনার শিশুর সাথে খেলা করেন, তার মস্তিষ্ক সেগুলোর সাথে এমন সমন্বয় ঘটিয়ে থাকে যে সে ভাষা, অঙ্ক, সঙ্গীত এবং যুক্তিবিদ্যা শিখতে সুযোগ পায়। আপনি যখন আপনার শিশুকে সান্ত্বনা দেন, আপনি তাকে জানতে দেন যে এ পৃথিবী তার জন্য নিরাপদ। যত…

Read More

৬-৯ মাস বয়সী শিশুর বিকাশে যেভাবে সাহায্য করবেন

৬-৯ মাস বয়সী শিশুর বিকাশে যেভাবে সাহায্য করবেন

৬-৯ মাসে পরিবর্তনীয় বৈশিষ্ট্য খুব শীঘ্রই সে তার প্রথম পা ফেলবে। আপনার কাজ হবে তার নিজস্ব ভঙ্গিতে তাকে একটা সঠিক পথ বেছে নিতে উৎসাহিত করা। আপনি এখন আরও ভাল করে বুঝতে পারবেন সে কিভাবে স্বাচ্ছন্দ্য পেতে পছন্দ করে- তাকে খাওয়ানো , তাকে জড়িয়ে ধরে রাখা বা দোল খাওয়ানো, আপনার কোলে দাঁড়ানো অবস্থায় সাহায্য পেতে নাকি স্ট্রলারে করে চুপচাপ বেড়াতে যেতে। আপনারা দুজনে কোন শব্দ উচ্চারণ না করে ও নিজেদের মধ্যে কথা বার্তা  বলতে শিখবেন। মনোযোগ সহকারে তার কথা শুনবেন। আপনি ও আপনার শিশু যত এক অপরকে চিনতে থাকবেন, আপনি ততই…

Read More

৩-৬ মাস বয়সী শিশুর বিকাশে যেভাবে সাহায্য করবেন

৩-৬ মাস বয়সী শিশুর বিকাশে যেভাবে সাহায্য করবেন

৩-৬ মাসে পরিবর্তনীয় বৈশিষ্ট্য জন্মের সময় শিশুদের মস্তিষ্ক সম্পূর্ণভাবে পরিণত থাকেনা। শিশুরা যখন বিভিন্নধরনের শব্দ, ঘ্রাণ, দেখার জিনিস, স্নেহ এবং প্রীতি পূর্ণ স্পর্শের অভিজ্ঞতা লাভ করে, তখন তাদের মস্তিষ্ক এ-সবের সাথে সমন্বয় সাধন করে যার মাধ্যমে তারা ভাষা শেখে, সমস্যা সমাধান করতে, এমনকি পরবর্তী জীবনে গণিত সংক্রান্ত বিষয়সমূহ সমাধান করতে শেখে। আপনার ও প্রাপ্ত বয়স্ক যারা শিশুদের দেখাশোনা করেন তাদের সাথে পারশপরিক সম্পর্ক শিশুদের মনের মাঝে সামাজিক ও মানসিক আবেগ জাগিয়ে তোলে। আপনি যখন কথা বলেন, গান করেন, জড়িয়ে ধরেন এবং আপানার শিশুর ডাকে সাড়া দেন, আপনি তার পূর্ণতা বিকাশে…

Read More

০-৩ মাস বয়সী শিশুর বিকাশে যেভাবে সাহায্য করবেন

০-৩ মাস বয়সী শিশুর বিকাশ

০-৩ মাস বয়সী শিশুর বিকাশ নতুন বাবা-মা হওয়া খুবই রোমাঞ্চকর এবং কষ্টকরও। প্রথম তিন মাস আপনার শিশুর সাথে সাথে আপনিও বাড়তে ও শিখতে থাকবেন। আপনার সাথে সময় কাটানোর চাইতে অন্য কিছু আর গুরুত্বপূর্ণ নয় আপনার শিশুর কাছে। আপনি যখন আপনার শিশুকে খাওয়ান, জড়িয়ে ধরেন, তার সাথে কথা বলেন ও খেলা করেন সে-সবের মাধ্যমে আপনি তার মনে মধ্যে আত্মবিশ্বাস, কৌতূহল ও কথা বলার বোধশক্তি সৃষ্টি করেন। আপনি তাকে অনুভব করতে দেন যে সে ভালবাসার পাত্র, তার যোগ্যতা আছে, এবং তার চারিদিকে বিরাট এই পৃথিবীর মাঝে সে নিরাপদ। শিশুরা যদি কথা বলতে…

Read More