শিশুদের জ্বরের পর র‍্যাশ বা ফুসকুড়ি ওঠার কারণ কি?

শিশুদের জ্বরের পর র‍্যাশ বা ফুসকুড়ি ওঠার কারণ কি?

শিশুরা অসুস্থ থাকলে তাদের জ্বর হওয়াটা অস্বাভাবিক কিছু নয়। তাদের ঠান্ডা লাগলে কিংবা ছোটখাট অসুখের কারণে তাদের প্রায়ই জ্বর উঠতে পারে। এর মধ্যে কিছু অসুখ যেমন রোজিওলা ( roseola)  কিংবা স্কারলেট ফিভারের (scarlet fever)  কারণে জ্বর উঠলে জ্বর চলে যাওয়ার পর শিশুর শরীরে ছোট ছোট ফুসকুড়ি বা র‍্যাশ দেখা দিতে পারে। জ্বর মূলত কোন রোগ নয়, এটা একটা সিগন্যাল। শরীরের রোগ প্রতিরোধ সিস্টেম যে ইনফেকশনের সাথে যুদ্ধ করছে, সেটার সিগনালই হলো জ্বর। শরীর নিজের তাপমাত্রা বৃদ্ধি করার মাধ্যমে ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলে। ১ থেকে ৩ বছরের শিশুরা…

Read More

শিশুর হাম উঠলে করণীয়

শিশুর হাম উঠলে করণীয়

এখনো কি শিশুদের হাম হওয়া নিয়ে দুশ্চিন্তা করার কিছু আছে? ১৯৭৯ সাল থেকে বাংলাদেশে ১ বছরের নিচে সকল শিশুদের হামের (measles or rubeola) টিকা দেওয়া হয়ে থাকে। হামের টিকা দেওয়া থাকলে এ নিয়ে দুশ্চিন্তা অনেকটা কমে যায় তবুও উন্নত দেশগুলোতে যে হারে হামের সংক্রমণ কমে গিয়েছে, বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশে কিন্তু হাম এখনও নিশ্চিহ্ন হয়ে যায়নি বরং সারা বিশ্বজুড়ে এখনও হাম বেশ বড় একটি হুমকি বলা যায়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) এর মতে, সারা বিশ্বজুড়ে ৩০ মিলিয়নের বেশী মানুষ প্রতি বছর হামে আক্রান্ত হয়। ২০০৬ সালে, দুই লাখ ৪২ হাজার…

Read More

শিশুর শরীরের তাপমাত্রা কিভাবে পরিমাপ করবেন ?

শিশুর শরীরের তাপমাত্রা কিভাবে পরিমাপ করবেন ?

শিশু যখন ছোট থাকে, তার শরীর এতটাই সংবেদনশীল থাকে যে, শরীরের তাপমাত্রা কখন যে কেমন আচরণ করে তা বলা মুশকিল। শিশুর মধ্যে যদি জ্বরের প্রাথমিক উপসর্গগুলো লক্ষ্য করে থাকেন, তবে দ্রুত সঠিক উপায়ে শিশুর শরীরের তাপমাত্রা পরিমাপ করা জরুরী। থার্মোমিটারের শিশুর জ্বর কত দেখাচ্ছে তার উপর ভিত্তি করেই আপনার সিদ্ধান্ত নিতে হবে, আপনি শিশুকে নিয়ে ডাক্তারের কাছে যাবেন কি না। শিশুর শরীরের তাপমাত্রা কত হলে সেটাকে ‘বেশী‘ বলা যায়? স্বাভাবিকভাবে, শিশুর মুখের তাপমাত্রা ৩৬.৪ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড অথবা ৯৭.৫ ডিগ্রী ফারেনহাইট থাকলে, সেটাকে শিশুর শরীরের স্বাভাবিক তাপমাত্রা বলে বিবেচনা করা হয়।…

Read More

শিশুর আয়রনের ঘাটতি জনিত এনিমিয়া (Iron-deficiency anemia)

শিশুর আয়রনের ঘাটতি জনিত এনিমিয়া (Iron-deficiency anemia)

ফ্যাঁকাসে দেখানো এবং ক্লান্ত লাগা রক্ত শূন্যতার প্রাথমিক কিছু লক্ষণের মধ্যে অন্যতম। অন্যান্য কিছু লক্ষণ হল দ্রুত হৃৎস্পন্দন, বিরক্ত লাগা, ক্ষুধা মন্দা, ভঙ্গুর নখ এবং কালশিটে পড়া অথবা ফুলে যাওয়া জিহ্বা। কিন্তু এই ধরনের কোন লক্ষণ দেখা যাওয়া ছাড়াও শিশুদের রক্ত শূন্যতায় ভুগতে প্রায়শই দেখা যায়।

Read More

শিশুর জ্বর সম্পর্কে যে ৭টি বিষয় হয়ত আপনার জানা নেই

শিশুর জ্বর সম্পর্কে যে ৭টি বিষয় হয়ত আপনার জানা নেই

শিশুর মলদ্বারের তাপমাত্রা ১০০.৪ ডিগ্রি ফারেনহাইট অথবা তার থেকে বেশি হলে সেটাকে জ্বর বলে ধরা হয়  আপনার শিশুর হয়ত ঘুম ভেঙ্গে যাবে জ্বরের কারণে, আর আপনি দেখবেন তাপমাত্রার কারণে তার গাল রক্তিম বর্ণ ধারণ করেছে। আর তখন ডিজিটাল থার্মোমিটারের মাধ্যমে আপনি তার মলদ্বারের তাপমাত্রা পরিমাপ করে দেখলেন তাপমাত্রা দেখাচ্ছে ৯৯.৯৯ ডিগ্রি। এমনটা দেখার সাথে সাথেই কি আপনি শিশুকে ওষুধ খাওয়াবেন অথবা ডাক্তারের শরণাপন্ন হবেন? হয়ত না… আদতে এমন তাপমাত্রাকে সাধারণত জ্বর বলে আমরা আখ্যায়িত করিনা। কেননা একদম নবজাতকের ক্ষেত্রেও মলদ্বারের তাপমাত্রা ১০০.৪ ডিগ্রি থেকে যতক্ষণ পর্যন্ত কম থাকবে ততক্ষণ পর্যন্ত…

Read More

শিশুর মাথার আকৃতি: কোনটি স্বাভাবিক এবং কোনটি নয়।

নবজাতকের মাথার অস্বাভাবিক আকার খুব বেশি অপরিচিত নয়। যদিও এটা জীবনমরন কোন সমস্যা নয়, তবু বাবা-মায়েরা অনেক সময় চিন্তিত থাকেন এবং প্রথম থেকেই ব্যাস্ত হয়ে পড়েন সঠিক ভাবে মাথার গঠনকে সুগঠিত করতে। সৌভাগ্যবশত, একটু ধৈর্য ও কিছু সুপরামর্শ আপনার বাচ্চার মাথার আকৃতিকে স্বাভাবিক করতে সাহায্য করতে পারে।

Read More

শিশুর মাথার কোন অংশ সমান হয়ে যাওয়া বা ফ্ল্যাট হেড সিনড্রোম (Flat head syndrome)

শিশুর মাথার কোন অংশ সমান হয়ে যাওয়া বা ফ্ল্যাট হেড সিনড্রোম

শিশুর মাথার পিছনের অংশে অথবা যে কোন এক পাশের অংশে কিছুটা যায়গা যখন সমান থাকে তাকে Plagiocephaly বলে। Plagiocephaly মানে হল মাথার একটা অংশ বাঁকা অথবা ঢালু থাকা তবে বেশিরভাগ মানুষ এটাকে Flat head syndrome নামে আখ্যায়িত করে থাকে। সাধারণত সময়ের সাথে সাথে এটা ঠিক হয়ে যায়।

Read More

শিশুরা কেন অতিরিক্ত ঘামায় এবং এ সম্পর্কে বিস্তারিত

শিশুরা কেন অতিরিক্ত ঘামায়

শিশু যদি প্রচুর পরিমাণে ঘামায় তাহলে আমরা অনেকেই বিষয়টা স্বাভাবিকভাবেই নেই, কেননা জন্মের প্রথম দিন থেকেই সে বেশ ঘামাচ্ছে। তবে একটা সময়ে অন্যান্য শিশুদের তুলনা করলে আমরা দেখি যে নিজের শিশুটি হয়ত অন্যান্যদের তুলনায় একটু বেশিই ঘামাচ্ছে। তখন আপনার মনে হয়ত একটু উদ্বেগের ভাব চলে আসে যে, আপনি বিষয়টাকে যতটা স্বাভাবিক ভাবছিলেন, ব্যাপারটা আসলে ঠিক ততটা স্বাভাবিক নয়। তবে এর মধ্যেই এত দুশ্চিন্তা করার কিছু নেই, আসুন আগে আমরা বিষয়টা সম্পর্কে একটু জেনে নেই এবং বুঝে নেই আপনার শিশুর ক্ষেত্রে কি আদতেই এমন কোন উদ্বেগের বিষয় রয়েছে কি না।  সব…

Read More

শিশুদের দাঁতে দাঁত ঘষার প্রবণতা বা ব্রকসিজম

শিশুদের দাঁতে দাঁত ঘষার প্রবণতা বা ব্রকসিজম

আপনার ছোট্ট বাবুটা যখন ঘুমাচ্ছে তখন আপনি শুনতে চান ওর নিশ্চিন্ত শ্বাসপ্রশ্বাসের শব্দ, অথবা সুন্দর কোন স্বপ্ন দেখে বলে ওঠা আধো বুলি। আপনি কখনই শুনতে চাইবেন না ওর দাঁতে দাঁত ঘষার কর্কশ শব্দ। দুঃখজনক হলেও সত্যি যে অনেক মা-বাবাকেই এই কষ্টকর শব্দটা রাতভর শুনতে হয়।শিশুর দাঁতে দাঁত ঘষার এই প্রবণতার নাম “ব্রকসিজম”। দুনিয়াজুড়ে শিশুদের মধ্যে এটা খুবই সাধারন একটা সমস্যা।

Read More

১ থেকে ১২ বছর বয়সী শিশুর বিষম খাওয়া বা শ্বাসনালীতে কিছু আটকে গেলে ও শ্বাস প্রশ্বাস ফিরিয়ে আনার (CPR) জন্য জরুরী প্রাথমিক চিকিৎসা

শিশুর বিষম খাওয়া বা শ্বাসনালীতে কিছু আটকে গেলে ও শ্বাস প্রশ্বাস ফিরিয়ে আনার (CPR) জন্য জরুরী প্রাথমিক চিকিৎসা

একটু চোখ বন্ধ করে ভাবুন তো আপনি এমন একটা পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছেন, যেখানে আপনার ছোট্ট শিশুটির জীবন বাঁচানোর জন্য আপনাকে জরুরী চিকিৎসা গ্রহণ করতে হচ্ছে। কী? খুব ভয়াবহ একটা ব্যাপার তাই না? হ্যাঁ! জীবনে এমন একটা পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে আমরা কেউই চাই না, তবুও এমন পরিস্থিতি ঘটতেই পারে আমাদের জীবনে। তাই এর জন্য সবসময় প্রস্তুত থাকা খুব জরুরী, কেননা শিশুরা তাদের জীবন বিপন্ন হওয়ার মত হুট করে অনেক কিছুই করে বসতে পারে। যে কোন মুহূর্তেই শিশুর শ্বাসনালীতে খাবার আটকে যেতে পারে, কোথাও থেকে পড়ে যেতে পারে, পানিতে ডুবে যেতে পারে!…

Read More