গর্ভাবস্থা

গর্ভাবস্থা যা গর্ভধারণ বা জেস্টেশন নামেও পরিচিত, হলো এমন একটি সময় যখন কোনো নারীর শরীরের মধ্যে এক বা একাধিক সন্তানবৃদ্ধিলাভ করে থাকে।

বলা হয়, প্রতিটি নারীর জীবনে এক অনন্য সময় গর্ভাবস্থা। এই সময়ে শারীরিক এবং মানসিক বিরাট পরিবর্তন আসে। এর সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নিতে অপেক্ষা করতে হয় সন্তানের আগমনের।

আমাদের দেশে প্রায়ই দেখা যায় একজন নারী গর্ভবতী হওয়ার পর থেকেই তার আশে পাশের পরিচিত লোকজন বিভিন্ন পরামর্শ দিয়ে থাকেন। এটা করলে এমন হবে, ওটা করলে ভালো হবে, এটা ব্যবহার করলে সন্তানের জন্য খুব খারাপ এরকম আরো কত যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়! কিন্তু সব কিছুই কি আসলে মেনে চলাটা জরুরী? কিছু ভুল ধারণাও তো থাকতে পারে।

তাই আমরা চেষ্টা করেছি বিজ্ঞানভিত্তিক উৎস থেকে এমন সব বিষয় মায়েদের কাছে তুলে ধরতে যা গর্ভাবস্থা এর প্রতিটি ধাপে মায়েদের সাহায্য করবে। এখানে আপনি জানতে পারবেন গর্ভাবস্থার প্রতিটি সপ্তাহের বিস্তারিত বর্ণনা, গর্ভকালীন জটিলতা, গর্ভকালীন বিভিন্ন অসুখ ও সমস্যা এবং প্রতিকার, গর্ভকালীন স্বাস্থ্য সম্পর্কে। এছাড়াও গর্ভাবস্থায় মায়েদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেয়ারও চেষ্টা করা হয়েছে।

সপ্তাহ অনুযায়ী গর্ভাবস্থা

সপ্তাহ অনুযায়ী গর্ভাবস্থা বিভাগটিতে ভ্রূণ গঠনের প্রথম সপ্তাহ থেকে একটি পুর্নাঙগ মানব শিশুর বেড়ে ওঠার প্রতিটি স্তর ধারাবাহিকভাবে আলোচনা করা হবে সাপ্তাহিক ক্রমবিকাশের ধারা অনুযায়ী। প্রতি সপ্তাহে ভ্রুনের বিকাশ ও গঠন পরিবর্তনের সাথে সাথে মায়ের শারিরিক এবং মানসিক পরিবর্তনও এই আলোচনার বেশ উল্লেখযোগ্য একটি অংশ ।


সপ্তাহ ৩৪ । গর্ভকালীন প্রত্যেকটি সপ্তাহ

৩৪ সপ্তাহের গর্ভাবস্থা | ভ্রূণের বৃদ্ধি, মায়ের শরীর এবং কিছু টিপস

গর্ভাবস্থার ৩৪ তম সপ্তাহে গর্ভের ভ্রূণের শরীরের আকার আস্তে আস্তে পরিপূর্ণতা লাভ করতে থাকে। এসময় তার শরীরে বিশেষ একধরনের চর্বি জমা হতে থাকে যাকে ব্রাউন ...
Read More
সপ্তাহ ৩৫ । গর্ভকালীন প্রত্যেকটি সপ্তাহ

৩৫ সপ্তাহের গর্ভাবস্থা | ভ্রূণের বৃদ্ধি, মায়ের শরীর এবং কিছু টিপস

প্রসব বা ডেলিভারির ডেট যত ঘনিয়ে আসে, মায়ের গর্ভে থাকা শিশুটির বড় হওয়ার গতিও তত বেড়ে যায়। পরবর্তী ৩ সপ্তাহে বাচ্চার ওজন খুব দ্রুত বাড়তে ...
Read More
সপ্তাহ ৩৬ । গর্ভধারনের প্রত্যেকটি সপ্তাহ

৩৬ সপ্তাহের গর্ভাবস্থা | ভ্রূণের বৃদ্ধি, মায়ের শরীর এবং কিছু টিপস

আপনার গর্ভাবস্থায় আরও এক মাস বাকি থাকতেই শিশুটির ওজন হবে প্রায় ৬ পাউন্ডের মতো (একটা বড়সড় হানিডিউ ফলের কথা ভাবুন!) এবং এখন থেকে প্রতিদিনই সে ...
Read More

গর্ভকালীন জটিলতা


সন্তান ধারণ করার সময় থেকে সন্তান জন্মদানের পরবর্তী সময় পর্যন্ত একজন নারীকে বিভিন্ন শারীরিক জটিলতার সম্মুখীন হতে হয়। প্রতি বছর গর্ভকালীন বিভিন্ন জটিলতায় আমাদের দেশের বহু নারীর মৃত্যু হয়৷ এটার অন্যতম কারন হিসেবে আমরাআমাদের জানাশোনার সীমাবদ্ধতা ও অসচেতনাকে দায়ী করতেই পারি।

তাই এ ধরনের সমস্যাগুলো সম্পর্কে ধারণা দেয়া এবং এ থেকে নিরাপদ থাকার কিছু পরামর্শ দেয়া হলো৷ মনে রাখবেন গর্ভাবস্থায় বিভিন্ন জটিলতা বিষয়ে সচেতনতা ও সঠিক পরিচর্যাই পারে মা ও শিশুর জীবন বাঁচাতে৷ গর্ভাবস্থার বিভিন্ন জটিলতা সম্পর্কে জানতে নিচের লেখাগুলো পড়ুন।

No posts found.

গর্ভাবস্থায় অসুখ ও সমস্যা


গর্ভাবস্থায় ডায়রিয়া
গর্ভাবস্থায় অনেক মা ই কোষ্ঠকাঠিন্যে ভোগেন। এটা স্বাভাবিক। তবে এর উল্টোটাও দেখা যায়। গর্ভাবস্থায় ডায়রিয়া হওয়া স্বাভাবিক। অনেক মায়েরাই গর্ভাবস্থার বিভিন্ন পর্যায়ে ডায়রিয়ার শিকার হন ...
Read More
গর্ভাবস্থায় বিষণ্ণতা
গর্ভাবস্থাকে একটি অনেক আনন্দের ও সুন্দর সময় বলা হয়। তবে, কাঙ্খিত বা অনাকাঙ্ক্ষিত যেভাবেই হোক, যখন নিশ্চিত হন যে গর্ভধারণ করেছেন তখন স্বাভাবিকভাবেই আরও নানা ...
Read More
গর্ভাবস্থায় একজন নারীর শরীরে অনেক ধরনের পরিবর্তন ঘটে। এসব পরিবর্তনের কারণে মায়েদের শরীরে অনেক ধরনের ব্যাথা এবং অস্বস্তি বোধ হতে পারে। এমনই একটি হোল রাউন্ড ...
Read More
গর্ভাবস্থায় বুক জ্বালাপোড়া
গর্ভাবস্থায় অধিকাংশ মায়ের বুক জ্বালাপোড়া করে। এটা খুব সাধারণ ও স্বাভাবিক শরীরবৃত্তীয় ঘটনা। গর্ভাবস্থায় বুক জ্বালাপোড়া হচ্ছে-বুকের ভিতরের মধ্যবর্তী স্থান থেকে শুরু করে গলা পর্যন্ত ...
Read More
গর্ভাবস্থায় গ্যাসের সমস্যা
গর্ভকালীন সময়ে মায়েদের বিভিন্ন সমস্যার মধ্যে অন্যতম একটি সমস্যা হলো গ্যাসের সমস্যা। এটি যেকোনো সময়, যেকোনো মানুষের জন্যই অনেক বেশি অস্বস্তির হতে পারে। আর গর্ভাবস্থায় ...
Read More

গর্ভাবস্থায় পরিচর্যা

“অ্যান্টিনেটাল কেয়ার” শব্দটির আভিধানিক অর্থ হল গর্ভকালীন পরিচর্যা। একজন মেয়ে যখন গর্ভবতী হন, তখন তার শারীরিক ও মানসিক যে পরিবর্তন আসে সে বিষয়ে তাকে অবগত করা এবং এ সময়ে তিনি কেমন থাকবেন, তার কোন জটিলতা হতে পারে কিনা অথবা আদৌ কোন জটিলতা তৈরি হয়েছে কিনা সেসব বিষয়গুলো নিয়েই আমাদের গর্ভাবস্থায় পরিচর্যা বিভাগে আলোচনা করা হয়েছে।


No posts found.

গর্ভকালীন জিজ্ঞাসা


গর্ভাবস্থায় রেসাস বা Rh ফ্যাক্টর
গর্ভাবস্থায় রেসাস বা Rh ফ্যাক্টর এর প্রভাব জানার আগে রক্তের গ্রুপ সম্পর্কে কিছু জেনে নেয়া যাক। মানুষের রক্তের ধরন সাধারনত দুটো পদ্ধতিতে নির্ণয় করা হয়। ...
Read More
পোস্টেরিয়র প্লাসেন্টা
গর্ভকালীন সময়ে মায়ের শরীরে প্লাসেন্টা বা গর্ভফুল তৈরি হয়, যা জরায়ুর ভেতরের দেয়ালে লেগে থাকে। মা ও ভ্রূণের যোগাযোগ এই গর্ভফুলের মাধ্যমে হয়। প্লাসেন্টা ধীরে ...
Read More
অ্যান্টেরিয়র প্লাসেন্টা
গর্ভকালীন সময়ে মায়ের শরীরে প্লাসেন্টা বা গর্ভফুল তৈরি হয়, যা জরায়ুর ভেতরের দেয়ালে লেগে থাকে। মা ও ভ্রূণের যোগাযোগ এই গর্ভফুলের মাধ্যমে হয়। প্লাসেন্টা ধীরে ...
Read More
সিজারিয়ানের পর নরমাল ডেলিভারি
যদি মায়ের একবার সিজারিয়ান হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে পরবর্তীতে নরমাল ডেলিভারির সম্ভাবনা থাকে যদিও তা বেশ কিছু বিষয়ের উপর নির্ভর করে।এধরনের ডেলিভারিকে বলা হয় Vaginal Birth ...
Read More
গর্ভকালীন শিশুর দৈর্ঘ্য ও ওজন বৃদ্ধির চার্ট
গর্ভের শিশুর ওজন ও উচ্চতা বৃদ্ধি গর্ভাবস্থায় বাচ্চার ওজন ও উচ্চতা বৃদ্ধির সাথে সাথে মায়ের পেটের আকার ও বাড়তে থাকে। গড়পড়তা হিসেবে জন্মের সময় একটি ...
Read More