অসুস্থ বাচ্চার যত্ন । Care for sick baby

শীতকালীন ভাইরাস এর হাত থেকে আপনার শিশুকে রক্ষা করার হাজার চেষ্টার পরও শীতকালে বাচ্চা অসুস্থ হতে পারে। এটা খুবই স্বাভাবিক। এসব ক্ষেত্রে সঠিক চিকিৎসা করানো প্রথমেই জরুরী। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ খাওয়ানো বাচ্চাকে  কখনই উচিত নয়। ডাক্তারের পরামর্শের পাশাপাশি নিচের কিছু টিপস ফলো করে অসুস্থ শিশুকে ভালো রাখতে পারেন।

 

১. শীতকালীন অসুস্থতার সবচাইতে বড় সাইড এফেক্ট হোল ডি- হাইড্রেসন। তাই বাচ্চাকে হাইড্রেটেড রাখুন। ফুটানো পানি, ফলের জুস এবং দুধ খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

২. অসুস্থ বাচ্চাকে অন্যদের অপ্রয়োজনীয় সংস্পর্শ থেকে দূরে রাখুন। কারন এসব ভাইরাস খুব দ্রুত সংক্রমিত হয়।

৩. বাচ্চাকে গরম কাপড় পরিয়ে রাখুন। কিন্তু খুব বেশি গরম কাপড় যাতে পরানো না হয় সেদিকে খেয়াল রাখবেন।

৪. শিশু যাতে প্রয়োজনীয় বিশ্রাম পায় সেদিকে খেয়াল রাখবেন।

৫. নাক বন্ধ থাকলে ইনহেলার বা স্যালাইন ড্রপ ব্যাবহার করতে পারেন।

৬. সর্দির ক্ষেত্রে নিয়মিত বাচ্চার নাক পরিষ্কার করুন।

৭. বাচ্চাকে সময় দিন। অসুস্থ বাচ্চাকে এটাই সবচাইতে ভালো রাখতে পারে। বাচ্চার সাথে আদর করে, শান্ত ভাবে কথা বলুন। হাতের সব কাজ রেখে শুধু তার দিকেই কন্সেনট্রেট করুন।

৮. বাচ্চার ঘর পরিষ্কার রাখুন। মাঝে মাঝে ঘরের দরজা জানালা খুলে দিন যাতে বাতাস চলাচল করতে পারে।

৯. মাঝে মাঝে বাচ্চাকে গরম পানি দিয়ে গোসল করান। গরম পানি শুধু বাচ্চাকে আরাম ই দেয়না তার সাথে ব্যাথা ও দূর করে। গরম পানির বাষ্প সর্দির জন্নে ও ভালো। গোসল এর পর বাচ্চাকে ভালো ভাবে মুছিয়ে নিন।

১০. ঘুমানোর সময় বাচ্চার মাথা সামান্য উঁচু করে রাখুন যাতে নিশ্বাস এ কষ্ট না হয়।

 

 

শীতকালে বাচ্চাদের অসুস্থ হওয়াটা খুবই স্বাভাবিক। এটা তাদের ইমিউন সিস্টেমকেও শক্ত করে। তাই বিচলিত না হয়ে সঠিক যত্ন এবং সতর্কতা অবলম্বন করলে সহজেই এগুলো থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

 

সবার বাচ্চা শুস্থ থাকুক, সবার জন্য শুভ কামনা।

Fairyland

 

Related posts

Leave a Comment